Home Featured সংসদে প্রায় হাতাহাতি! রাহুলের মোদীকে ‘লাঠিপেটা’ মন্তব্যে উত্তাল লোকসভা

সংসদে প্রায় হাতাহাতি! রাহুলের মোদীকে ‘লাঠিপেটা’ মন্তব্যে উত্তাল লোকসভা

0
সংসদে প্রায় হাতাহাতি! রাহুলের মোদীকে ‘লাঠিপেটা’ মন্তব্যে উত্তাল লোকসভা
Parul

Highlights

  • ঘটনা এমন হল যে প্রায় হাতহাতির পর্যায়ে চলে গেল লোকসভা
  • রাহুলের প্রধানমন্ত্রীকে লাঠিপেটা করার মন্তব্য নিয়ে নিন্দা শুরু করেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী
  • অধিবেশন মুলতুবি করে দেন স্পিকার ওম বিড়লা

মহানগর ওয়েবডেস্ক: ‘যুবারা আপনাকে লাঠিপেটা করবে’। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে উদ্দেশ্য করে এমনই মন্তব্য করেছিলেন কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী। এই মন্তব্যের প্রেক্ষিতে তাঁকে পরোক্ষ জবাবও দেন মোদী, কিন্তু বিতর্ক মেটেনি। এদিন লোকসভায় এই নিয়েই ধুন্ধুমার বেঁধে গেল। ঘটনা এমন হল যে প্রায় হাতহাতির পর্যায়ে চলে গেল লোকসভা। শেষে অধিবেশন মুলতুবি করে দেন স্পিকার ওম বিড়লা।

এদিন সংসদে কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধনকে মেডিক্যাল কলেজ নিয়ে একটি প্রশ্ন করেন। সেই প্রশ্নে উত্তর না দিয়ে তিনি রাহুলের প্রধানমন্ত্রীকে লাঠিপেটা করার মন্তব্য নিয়ে নিন্দা শুরু করেন। বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে এই ধরনের মন্তব্য অস্বাভাবিক, অত্যন্ত নিন্দনীয়।’ কংগ্রেসীরা মন্ত্রীকে রাহুল গান্ধীর প্রশ্নের উত্তর দিতে বলেন, কিন্তু তিনি তখনও তা দেননি। এরপরেই সাংসদরা ওয়েলে নেমে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। তামিলনাড়ুর কংগ্রেস সাংসদ মানিকা ঠাকুর প্রায় ট্রেজারি বেঞ্চের কাছে চলে যান, দ্বিতীয় সারিতে থাকা হর্ষ বর্ধনের দিকে ছুটে যাওয়ার চেষ্টা করেন। হাত ধরে তাঁকে টেনে আটকানোর চেষ্টা করেন উত্তরপ্রদেশের বিজেপি সাংসদ ব্রিজভূষণ শরণ সিং। এরপরে আরও অন্যান্য বিজেপি সাংসদরা উত্তেজনা থামাতে উদ্যোগী হন।

উল্লেখ্য, দিল্লির নির্বাচনের জন্য এক সমাবেশে যোগদান করে রাহুল গান্ধী প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে সুর চড়িয়ে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী এখন তো খুব ভাষণ দিচ্ছেন, কিন্তু ছয় মাস পর, উনি ঘর থেকে বের হতে পারবেন না। দেশের যুবসমাজ ওনাকে লাঠিপেটা করে বুঝিয়ে দেবে যে চাকরি না দিলে এই দেশ কোনও ভাবেই এগোতে পারবে না।’ গতকাল লোকসভায় এই একই প্রসঙ্গে নাম না করে রাহুলের খোঁচার জবাব দিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জানিয়েছিলেন, ‘আমি শুনলাম একজন কংগ্রেস সাংসদ বলেছেন যে দেশের যুবারা মোদীকে ৬ মাসে লাঠিপেটা করবে। আমি আরও ঘনঘন সূর্য নমস্কার করব যাতে আমার পিঠ এত শক্ত হয়ে যায় যে লাঠির আঘাতও আমার আর না লাগে। শেষ ২০ বছরে আমি অনেক গালিগালাজ শুনেছি এবং নিজেকে গালি-প্রুফ বানিয়েছি। এখন নিজেকে আমি ডান্ডা-প্রুফ বানাচ্ছি।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here