national news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: দীর্ঘ ৭ মাস আটক থাকার পর অবেশেষে মুক্তি পেলেন ন্য়াশানাল কনফারেন্স প্রধান ফারুক আবদুল্লা। জানালেন, তিনি এখন মুক্ত। তাকে আটক করা হয়েছিল গত বছর ৩৭০ ধারা বিলোপ ও জম্মু কাশ্মীর ও লাদাখকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল ঘোষণা করার পর পরই একে একে আটক করা হচ্ছিল মেহেবুবা মুফতি, ওমার আবদুল্লাকে। এরপরই গৃহবন্দি করা হয় এনসি প্রধান ফারুক আবদুল্লাকেও। শুক্রবার ছাড়া পাওয়ার পর অশীতিপর নেতা বলেন, “আমি মুক্ত, আমি মুক্ত”।

ন্য়াশনাল কনফারেন্স প্রধান ফারুক আবদুল্লা বলেন, আমি রাজ্যের মানুষের কাছে কৃতজ্ঞ যে তারা আমার স্বাধীনতা নিয়ে, আমার মুক্তি নিয়ে কথা বলেছেন। আমি সকলকে ধন্যবাদ জানাতে চাই। আবদুল্লা আরও বলেন, তবে মুক্তি তখনই সম্পূর্ণ হবে যখন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি ও ওমর আবদুল্লাকেও মুক্তি দেওয়া হবে। আমি আশাবাদী, ভারত সরকার খুব শীঘ্রই তাদেরও মুক্তি দেবে। ফারুক আবদুল্লাকে গ্রেফতারির প্রসঙ্গে কেন্দ্র জানিয়েছিল পাবলিক সেফটি অ্যাক্টের আওতায় গ্রেফতার করা হয়েছিল তাঁকে।

ফারুক আবদুল্লার মুক্তিতে স্বভাবতই খুশি তার পরিবার। বাবার মুক্তির পর মেয়ে সাফিয়া আবদুল্লা খান আনন্দে আপ্লুত হয়ে জানান, আমার বাবা এখন মুক্ত মানুষ। টুইট করে একথা জানান তিনি।

টুইট করে শুভেচ্ছা জানান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। ফারুক আবদুল্লার সুস্বাস্থ্য কামনা করেন তিনি।

প্রসঙ্গত, সাফিয়া ও ওমর আবদুল্লার আরেক বোন সারা আবদুল্লা পাইলট দাদার মুক্তির জন্য দ্বারস্থ হয়েছিলেন সুপ্রিম কোর্টের। বাবা ফারুক আবদুল্লার মুক্তির পর কী মুক্ত হবেন ছেলে ওমরও? কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে নেওয়া পর উপত্যকায় শান্তি বজায় রাখতে ও কোনওরকম উস্কানিমূলক মন্তব্য যাতে না ছড়ায় তাই গ্রেফতার করা হয়েছিল বহু রাজনৈতিক নেতাদের। এবার ধীরে ধীরে মুক্তি দেওয়া হচ্ছে তাদের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here