পঞ্চায়েতে তৃণমূলের ভোট লুটের প্রতিবাদ করেছিলাম কেউ শোনেনি, দলবদলে সরব শোভন

0
49

মহানগর ওয়েবডেস্ক: সমস্ত জল্পনাকে পিছনে ফেলে বুধবার মুকুল রায় ও কেন্দ্রীয় বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্বের উপস্থিতিতে গেরুয়া শিবিরে যোগ দিলেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। তাঁর সঙ্গে ছিলেন বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ও। সাড়ম্বরে এদিন বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পরই পুরানো দল তৃণমূলের বিরুদ্ধে রীতিমতো জ্বলে ওঠেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। বলেন, পঞ্চায়েত নির্বাচনে শাসক দলের তরফে যে অগণতান্ত্রিক কর্মকাণ্ড হয়েছে তার প্রতিবাদে সরব হয়েছিলাম আমি।

মঙ্গলবার রাত থকেই খবরটা ছড়িয়েছিল বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। রাতের বিমানে দিল্লি যাওয়ার পর বুধবার বিকেল ৪ টে নাগাগদ বিজেপির সদর দফতরে পৌঁছন শোভন বৈশাখী। এরপর বিজেপির সর্বভারতীয় কার্যকরী সভাপতি জগৎপ্রকাশ নাড্ডা, পশ্চিমবঙ্গ বিজেপির দায়িত্বপ্রাপ্ত সহকারী পর্যবেক্ষক অরবিন্দ মেনন, দলের জাতীয় কর্মসমিতির সদস্য মুকুল রায়ের উপস্থিতিতে বিজেপিতে যোগ দেন শোভন বৈশাখী। ওই মঞ্চেই শোভন বলেন, ‘পঞ্চায়েত নির্বাচনের সময় থেকেই তৃণমূলের তরফে বাধা দেওয়া হয়েছে বিরোধীদের। প্রায় সমস্ত জায়গায় বিরোধীদের মনোনয়নই জমা দিতে দেওয়া হয়নি। তখনই আমি দলকে জানিয়েছিলাম এটা ঠিক হচ্ছে না। কিন্তু দল আমার কথা শোনেনি। আর সেই কারণেই এখন আমি কোনও ইতিবাচক শক্তির হাত ধরতে চাই।’

শোভনের পাশাপাশি সরব হয়ে ওঠেন মুকুল রায়ও। তিনি বলেন, বাংলায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পিছনে একাধিক নেতার মতোই অনেকখানি হাত রয়েছে কলকাতার প্রাক্তন মহানাগরিক শোভন চট্টোপাধ্যায়ের। অথচ আজ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তা অস্বীকার করেন। পাশাপাশি তিনি আরও বলেন, আজ শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বিজেপি যোগে বাংলার বিজেপি সংগঠন অনেক বেশি শক্তিশালী হল। আমি বলে দিচ্ছি আপনারা লিখে নিন, সামনে যে পৌরসভা নির্বাচন রয়েছে তাতে বিজেপিতো জিতবেই সঙ্গে ২০২১ বিধানসভা নির্বাচন বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে জয়লাভ করবে বিজেপি। আর বাংলায় বিরোধী দলের তকমাটাও হারাবে তৃণমূল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here