kolkata bengali news

ডেস্ক: ‘পি এম নরেন্দ্র মোদী’-র বায়োপিক নিয়ে চিন্তায় ছবির পরিচালক থেকে শুরু করে ছবির কলাকুশলীরা। ছবি মুক্তির ওপর নির্বাচন কমিশনের নিষেধাজ্ঞা জারি যেন অভিনেতা বিবেক ওবরয়ের জীবনে ঝড় তুলে দিয়েছে।তবে ঝড়ের পাশাপাশি নিজের জীবনের কিছু কথা তুলে ধরলেন অভিনেতা। বিবেক বলেন, ‘মুন্না ভাই এমবিএস’, ‘হাম তুম’ এবং ‘বান্টি অর বাবলি’ ছবিতে মুখ্য চরিত্রে অভিনয়ের জন্য তাঁকে প্রথম প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। তিনি সেই প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছিলেন। কারণ হিসেবে অভিনেতা জানান, এইসব ছবি একই সময়ে পড়ে যাওয়ার তিনি তা করে উঠতে পারেননি। সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে বিবেক বলেন, পরিচালক রাজকুমার হিরানি আমাকে ‘মুন্না ভাই এমবিএস’ ছবির প্রস্তাব দিয়েছিলেন। সেই সময় আমি ‘কোম্পানি’ ছবিতে কাজ করছিলাম তাই ‘মুন্না ভাই’-য়ের শ্যুটিং করা হয়ে ওঠেনি। বাধ্য হয়েই ছবিটি ছাড়তে হয়। আমি ‘মুন্না ভাই’ করতে চেয়েছিলাম কিন্তু তা আমার ভাগ্যে ছিল না। ছবিটির ভাগ্যে ছিল সঞ্জয় দত্ত। শেষমেষ তিনি এই ছবিটি করেন। ছবিতে সঞ্জয়ের বিপরীতে দেখা গিয়েছিল অভিনেত্রী গ্রেসি সিং-কে।

অভিনেতা আরও বলেন, ফারহা আমাকে ‘ওম শান্তি ওম’ ছবিতে একটা গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয়ের অফার দিয়েছিল। ফারহা আমার খুব ভালো বন্ধু কিন্তু সেই ছবিটি করতে আমার একটু অসুবিধে হয়েছিল। কারণ, ‘কোম্পানি’ ছবিটিতে খলনায়কের চরিত্রে অভিনয় করেছিলাম। তাই অন্য কোনও ছবিতে ফের খলনায়কের চরিত্রে অভিনয় করার ইচ্ছে একেবারেই ছিল না। বিবেকের বদলে ছবিতে দেখা যায় অর্জুন রামপালকে। ছবিতে মুখ্য চরিত্রে ছিল শাহরুখ খান এবং অভিনেত্রী দীপিকা পাডুকোন। ২০০৭ সালে ‘ওম শান্তি ওম’ ছবি দিয়েই বলিউডে ডেবিউ করেছিলেন অভিনেত্রী। একের পর এক হিট ছবির প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়ে তিনি কী আক্ষেপ করেছিলেন? অভিনেতা বলেন, আক্ষেপ হয়েছিল কিন্তু কিছু করার ছিল না। কোনও জিনিসই আগে তৈরি থাকে না। কখনই জানা সম্ভব নয়, কোন ছবি হিট বা ফ্লপ হতে চলেছে।

যদিও বিবেকের অভিনয় জীবনে বড় হাত রয়েছে অভিনেতা সলমান খানের। ঐশ্বর্য রাইয়ের সঙ্গে একসময়ে প্রেম ছিল দুই অভিনেতার। সলমানের সঙ্গে বিচ্ছেদের পর অভিনেত্রীর নাম শোনা গিয়েছিল বিবেক ওবরয়ের সঙ্গে। এরপর থেকে শুরু হয় ঝামেলা। বিবেক অভিযোগ তোলেন, সলমান তাঁকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেছেন। একটি ভিডিও টেপ তিনি মিডিয়ায় সামনে প্রকাশ করেন। এরপরেই বিতর্ক শুরু হয়। সেই আগুন আজও থামেনি। অভিনেতা সবকিছু ভুলে নতুন করে শুরু করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু সলমান আজও তাঁকে ক্ষমা করেননি। একটি অ্যাওয়ার্ড শো’তে বিবেক সবার সামনে ক্ষমা চান, কিন্তু তাতেও রাগ কমেনি ‘ভাইজান’-এর। আজও চলছে সেই সংগ্রাম।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here