ডেস্ক: বিমানে যাত্রায় কোনও না কোনও কারনে বিলম্ব হয়নি এমন যাত্রী খুব কমই আছেন। আর বিমান বিড়ম্বনায় বাদ যান না সেলিব্রিটি থেকে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী থেকে সেলিব্রিটিরা। তবে এবার সেই সমস্যায় হস্তক্ষেপ করল কেন্দ্র। এখন থেকে কোনও উড়ান বাতিল বা উড়ানে বিলম্ব হলে ওই বিমানের যাত্রীকে ক্ষতিপূরণ দিতে বাধ্য থাকবে সংশ্লিষ্ট বিমান সংস্থা।

সম্প্রতি এমনই নির্দেশ জারি করেছে কেন্দ্রীয় অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রক। বিমান পরিবহণ মন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী জয়ন্ত সিনহা সাংবাদিক বৈঠক করে জানান, ‘এখন থেকে যদি কোনও বিমান উড়ানে বিলম্ব হয়, সেক্ষেত্রে ওই বিমানের যাত্রীদের ক্ষতিপূরণ দিতে বাধ্য থাকবে বিমান সংস্থা। এমনকি বাতিল হলে বা কোনও রকম দুর্ঘটনা ঘটলে টিকিটের মূল্য ফেরৎ দেওয়ার পাশাপাশি, ক্ষতিপূরণও দিতে হবে বিমান সংস্থাকে। কেন্দ্রের এই নিরদেসিকায় জানান হয়েছে, কোনও বিমান বুকিং করা হলে ২৪ ঘন্টা পর্যন্ত তা লকিং অপসান থাকবে। বিমান উড়ান ভরার ৯৬ ঘন্টা আগে টিকিট বাতিল করা যাবে। বিমান যাত্রায় কোনও যাত্রী কারও নাম ঠিকানার পরিবর্তন করতে চাইলে ২৪ ঘন্টার মধ্যে তা করতে হবে। কোনও কারনে বিমান যাত্রা যদি বিমানসংস্থার কারনে ১ দিন পিছিয়ে যায় তবে যাত্রীদের থাকার জন্য হোটেলের ব্যবস্থা করে দিতে হবে সংস্থাকে। সেই সঙ্গে আরও জানান হয়েছে, বিমানে দেরির কারনে কোনও যাত্রীর কানেক্টিং বিমান যদি মিস হয় সেক্ষেত্রে ৫ হাজার টাকা জরিমানা দিতে হবে সংস্থাকে। ৪ থেকে ১২ ঘন্টার ব্যবধানে কানেক্টিং বিমান মিস হলে ১০ হাজার টাকা, ও ১২ ঘন্টার বেশি হলে ২০ হাজার টাকা যাত্রীকে ক্ষতিপূরন বাবদ দিতে হবে বিমান সংস্থাকে। সেই সঙ্গে কেন্দ্রের তরফে আরও জানানো হয়েছে, বিমান যদি ৪ ঘন্টার ও তার বেশি দেরি করে সেক্ষেত্রে বিমান ভাড়ার পুরো টাকাটাই ফেরৎ দিতে হবে বিমান সংস্থাকে।

বিমানে বাতিল এবং দেরি হওয়ার অভিযোগ দিনে দিনে বেড়ে চলেছে ব্যাপকভাবে। যার ফলে ব্যাপক হয়রানির শিকার হন যাত্রীরা। সাম্প্রতিক সময়ে, উত্তরবঙ্গ থেকে কলকাতা ফেরার সময় বিমানে ব্যাপক দেরির অভিযোগ তুলেছিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। তবে কেন্দ্রের এই নির্দেশিকায় বিমান বিভ্রাটের যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পাবেন যাত্রী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here