kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি: ভ্যাকসিন সরবরাহ নিয়ে বারবার বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি এবং বেশ কিছু রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী অসন্তোষ প্রকাশ করেছে। এই বিষয়ে বারবার কেন্দ্রকে বিঁধেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। টিকাকরণ নিয়ে ফের একবার সরব হলেন তিনি। আজ প্রধানমন্ত্রীকে ফের একবার চিঠি দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

চিঠিতে তিনি লেখেন, ‘দেশে করোনার অবস্থা খুবই মারাত্মক। টিকাকরণ একমাত্র উপায় এই মহামারি থেকে বাঁচার। কিন্তু দেশে ভ্যাকসিনের উৎপাদন খুবই কম। পশ্চিমবঙ্গের ১০ কোটি এবং সারা ভারতের ১৪০ কোটি মানুষকে ভ্যাকসিনেশনের আওতায় আনা খুব জরুরি। কিন্তু যে সংখ্যক মানুষ ভ্যাকসিন পেয়েছে তা সংখ্যায় অতি নগন্য। বিদেশের বিভিন্ন কোম্পানি ভ্যাকসিন তৈরি করছে।  বিদেশের বিভিন্ন সংস্থার সঙ্গে যোগাযোগ করে সেখান থেকে ভ্যাকসিন আনার ব্যবস্থা করা হোক। দেশের এই অবস্থার কথা চিন্তা করে বিদেশে যে কোনও জায়গা থেকে ভ্যাকসিন আমদানি করা হোক দেশে।‘ একই সঙ্গে তিনি লেখেন, ‘বিপুল চাহিদা মেটাতে বিদেশি সংস্থাগুলিকে দিয়ে টিকা উৎপাদন করানো যেতে পারে। দেশে তাদের শাখা খোলার ব্যবস্থাও করা যেতে পারে। কেন্দ্র চাইলে টিকা তৈরির কারখানার জন্য জমিও দিতে পারে পশ্চিমবঙ্গ সরকার।‘

মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেওয়ার দিনও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে চিঠি লিখেছিলেন। করোনার এই বাড়বাড়ন্ত হওয়ায় সরাসরি কেন্দ্রীয় সরকার এবং তার সঙ্গে নির্বাচন কমিশনকে দায়ী করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

উল্লেখ্য, মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় এক সাংবাদিক সম্মেলনে রাজ্যবাসীকে আশ্বস্ত করেছেন টিকা নিয়ে আতঙ্কিত না হওয়ার জন্য। ক্ষমতায় আসার পর মুখ্যমন্ত্রীর এক সপ্তাহের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীকে বেশকিছু চিঠি লেখা নিয়ে স্বভাবতই এক অন্য রাজনীতির গন্ধ পাচ্ছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here