ডেস্ক: কংগ্রেস জেডিএসের থেকে বিধায়ক ভাঙানোর অভিযোগে কর্ণাটক রাজ্যে এই মুহূর্তে ভিলেন বিজেপির প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ইয়েদুরাপ্পা। গোটা দেশ যখন লোকসভার যজ্ঞে মেতে উঠেছে তখনও বিধানসভাই পাখির চোখ কর্ণাটক রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ইয়েদুরাপ্পার। আর সেই লক্ষ্যেই এদিন জানিয়ে দিলেন লোকসভায় ২২ টি আসন হাতে এলেই ২৪ ঘন্টার মধ্যে ছবিটা পাল্টে যাবে কর্ণাটকের। আমরাই ফের গড়ব সরকার। ঘোড়া কেনাবেচা নিয়ে উত্তাল কর্ণাটক রাজ্যে ইয়েদুরাপ্পার এহেন হুঁশিয়ারিতে বেশ চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে রাজনৈতিক মহলে।

কোটি কোটি টাকা ও মন্ত্রিত্বের টোপ দিয়ে বিধায়ক ভাঙানোর অভিযোগে বারে বারে ইয়েদুরাপ্পার বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী ডি কুমারস্বামী। যদিও ইয়েদুরাপ্পার দাবি, ‘কুমারস্বামীকে মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে মেনে নিতে পারছেন না কংগ্রেসের অন্তত ২০ জন বিধায়ক। তাঁরা বিজেপিতে যোগ দেওয়ার জন্য প্রস্তুত হয়ে রয়েছে। লোকসভা নির্বাচনে আমরা যদি ২২ টি আসন পেয়ে যাই তবে ২৪ ঘন্টার মধ্যে এখানে সরকার গঠন করব আমরা।’ ইয়েদুরাপ্পার এই হুঁশিয়ারি যে খুব একটা ভুল নয় তা বেশ বুঝে গিয়েছে শাসক দল। ইতিমধ্যেই কংগ্রেস ছেড়ে সেখানে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন বিধায়ক উমেশ যাদব। গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব ফুটে উঠেছে কংগ্রেস জেডিএসের অন্দরেও। বিধানসভায় ১০৪ টি আসন পেয়েও সরকার গড়তে পারেনি বিজেপি। সেই জায়াগায় কংগ্রেস ৮০ এবং জেডিএস-বিএসপি জোট ৩৭টি আসন নিয়ে সরকার তৈরি করে।

তবে বিতর্কিত মন্তব্য ইয়েদুরাপ্পার এই প্রথমবার নয়, বালাকোটে এয়ার স্ট্রাইকের ঠিক পরেই ইয়েদুরাপ্পাকে বলতে শোনা যায়, এই হামলার পর নরেন্দ্র মোদীর জনপ্রিয়তা বহুগুণ বেড়ে গিয়েছে। এই হামলাই কর্ণাটকে বিজেপিকে ২২ আসন তুলতে সাহায্য করবে। তাঁর সেই মন্তব্য নিয়ে ব্যাপক জলঘোলা শুরু হয় বিরোধী মহলে। বিরোধীদের তরফে জানানো হয়, ভোটের জন্যই যে মোদী সেনাকে ব্যবহার করেছে তা ইয়েদুরাপ্পার মন্তব্যে স্পষ্ট।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here