ডেস্ক: পঞ্চায়েত নির্বাচনের ডামাডোল বেজে যাওয়ার পর থেকেই, মনোনয়ন জমা দেওয়াকে কেন্দ্র করে রাজ্যজুড়ে তৈরি হয়েছে বিক্ষিপ্ত অশান্তির পরিবেশ। ঘটনার জেরে রাজ্য নির্বাচন কমিশনের কাছে শাসকদলের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়েছে বিরোধীরা। বসে নেই শাসকদলও, তারাও বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষের কূমন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে পাল্টা অভিযোগ জানিয়েছে কমিশনের কাছে। সবমিলিয়ে ফাঁপরে পড়েছে রাজ্য নির্বাচন কমিশন। গোটা পরিস্থিতির জেরে শনিবার পর্যবেক্ষকদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন রাজ্য নির্বাচন কমিশনার অমরেন্দ্র কুমার সিং।

এই বৈঠকে পর্যবেক্ষকদের এদিন নির্বাচন কমিশনার জানান, ‘ সকাল থেকে খবর পাচ্ছি বাঁকুড়া, ডায়মন্ড হারবার আর মুর্শিদাবাদে নৈরাজ্য পরিবেশ তৈরি হয়েছে। আপনারা সরকাররি আধিকারিক,এখানে আপনাকে কমিশনের হয়ে কাজ করতে হবে। আপনারা কমিশনের চোখ ও কান।’ একইসঙ্গে তিনি বলেন, ‘রাজ্য জুড়ে যে ঘটনাগুলি ঘটছে তা অনভিপ্রেত কাজ করতে গিয়ে যদি কোনও রকম সমস্যায় পড়েন তবে সঙ্গে সঙ্গে আমাকে ফোন করবেন।’ সেইসঙ্গে, ৯ এপ্রিলের মধ্যে ব্লকে ব্লকে পৌছে যাওয়ার নির্দেশ দেন পর্যবেক্ষকদের। এবং যারা নমিনেশন দিতে পারবেন না, তাঁদের জন্য এসডিও দপ্তরে নমিনেশনের ব্যবস্থা করারও নির্দেশ দেন তিনি।

এদিকে, মনোনয়ন জমাকে ঘিরে রাজ্যজুড়ে ক্রমাগতভাবে চলতে থাকা হিংসার প্রেক্ষিতে নির্বাচন কমিশনারের অফিসের সামনে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে কংগ্রেসের কর্মী সমর্থকরা। কমিশনারের গাড়িকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে তারা। পরিস্থিতি সামাল দিতে গেলে পুলিশের সঙ্গেও ধ্বস্তাধস্তি শুরু হয় কংগ্রেস সমর্থকদের। তাদের মাঝখান থেকে পুলিশ কোনও রকমে নির্বাচন কমিশনার অমরেন্দ্র কুমার সিংকে উদ্ধার করে নিয়ে যায় পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here