ডেস্ক: ভারত-পাকিস্তানে দুই দেশের পরিস্থিতি এই মুহূর্তে চরম উত্তেজনাময়। যদিও সেই চরম পরিস্থিতির মাঝে চাপে পড়ে একাধিকবার ভারতের কাছে সান্তির আবেদন জানিয়েছে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ঠিক সেই সময়ে তাঁদের হাতে বন্দি হন ভারতীয় পাইলট অভিনন্দন বর্তমান। গোটা বিশ্বের কাছে কোণঠাসা হয়ে পড়া ইমরান চালটা খেলেন অভিনন্দনকে দিয়েই। শান্তির বার্তাকে বিশ্বের কাছে দেখাতে অভিনন্দনকে মুক্তি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন ইমরান। আর এই খবর সংসদে জানানোর আগে ভারতকে জানানোর জন্য তিন বার নরেন্দ্র মোদীকে ফোন করেছিলেন তিনি। কিন্তু মোদীর তরফে রিসিভ করা হয়নি সেই ফোন।

জানা গিয়েছে, ভারতের উইং কম্যান্ডর অভিনন্দন বর্তমানকে যে ভারতে ফেরানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে পাকিস্তান সে খবর প্রথম ফোন জানানোর চেষ্টা করা হয়েছিল ভারতের প্রধানমন্ত্রী দফতরকে। এক আধবার নয়, পরপর তিনবার ইমরানের তরফে ভারতে ফোন করা হলেও সম্ভবত সেই কল রিসিভ করার মতো কেউ ছিলেন না প্রধানমন্ত্র দফতরে। ফলে বারে বারে ফোন আসা সত্ত্বেও তোলা হয়নি সেই ফোন। এই ঘটনায় বেশ মনক্ষুণ্ণ হন পাক প্রধানমন্ত্রী। এরপর মোদীকে ফোনে না পেয়ে, পাক সংসদে দাঁড়িয়েই অভিনন্দনকে মুক্তি দেওয়ার ঘোষণা করেন ইমরান খান। শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য তিনি যে সর্বদা এগিয়ে রয়েছেন সে খবরও প্রকাশ করেন ইমরান। শুধু তাই নয়, জানা গিয়েছে ফোনে না পেয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী দফতরে বার্তাও দিয়ে রেখেছিলেন ইমরান। তারও কোনও সদুত্তর আসেনি ভারতের পক্ষ থেকে।

উল্লেখ্য, ১৪ ফেব্রুয়ারি পুলওয়ামার জঙ্গি হামলা প্রাণ কেড়েছিল ৪০ ভারতীয় সেনার। তার ঠিক বারো দিনের মাথার মঙ্গলবার পাকিস্তানের ঘরের ভিতর ঢুকে বালাকোটে বিমান হামলা চালায় ভারত। গুড়িয়ে দেওয়া হয় জইশের সবচেয়ে বড় জঙ্গি ঘাঁটি। তার পাল্টা দিতে গিয়ে ভারতের মাটিতে পাক বিমান অনুপ্রবেশের চেষ্টা করলে তাড়া খেয়ে ফিরে যায় তারা। ওই ঘটনায় পাকভূমে ভেঙে পড়ে ভারতের বিমান মিগ-২১। পাকিস্তানের হাতে গ্রেফতার হল তার চালক অভিনন্দন বর্তমান। যদিও ব্যাপক কূটনৈতিক চাপের মুখে পড়ে শুক্রবার তাঁকে ছেড়ে দেয় পাকিস্তান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here