ডাক শুনে সাড়া দেওয়ার কেউ নেই, অগত্যা প্রতিবাদ জানাতে ‘বড় জলসা’ ডাকলেন ইমরান

0
137
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: ভেঙে পড়েছেন, কিন্তু মচকাতে নারাজ ইমরান খান। কাশ্মীর ইস্যুতে সব কূল হারিয়ে এখন দিশেহারা অবস্থা পাক প্রধানমন্ত্রীর। কিছুতেই ভারতকে চাপে ফেলতে পারছেন না তিনি। অগত্যা এখন ‘বড় জলসা’র আয়োজন করতে হচ্ছে তাঁকে। এ জন্য টুইটের মাধ্যমে গোটা পাকিস্তানবাসীর কাছে তিনি আবেদন জানিয়েছেন পাশে থাকার। বুধবার টুইট করে এই ‘বড় জলসা’র কথা ঘোষণা করেন ইমরান।

আদতে মহামিছিলের ডাক দিয়েছেন ইমরান। সেটাকেই উর্দুতে ‘বড় জলসা’ আখ্যা দিয়েছেন তিনি। টুইটে তিনি জানিয়েছেন, কাশ্মীর নিয়ে গোটা বিশ্বকে বার্তা দিতে ১৩ সেপ্টেম্বর এই মহামিছিলের আয়োজন করা হবে। টুইটে ইমরান লিখেছেন, ‘আগামী শুক্রবার ১৩ সেপ্টেম্বর মুজফফরাবাদে আমি একটি বড় জলসার আয়োজন করব। এর মাধ্যমে বিশ্বকে ভারত অধিকৃত জম্মু ও কাশ্মীরে ভারতীয় সেনার অত্যাচারের বিষয়ে প্রকৃত ছবিটা তুলে ধরতে চাই। কাশ্মীরিদের আমরা দেখাতে চাই যে পাকিস্তান তোমাদের পাশেই রয়েছে।’ ইমরান খানের এই টুইট বা তাঁর ‘মহা জলসা’র কর্মসূচি যে আদতে আন্তর্জাতিক মহলের দৃষ্টি আকর্ষণের চেষ্টা ছাড়া কিছুই না তা চোখ বন্ধ করেই বলে দেওয়া যায়। কারণ সন্ত্রাসবাদকে আস্কারা দেওয়ার দিতে চেয়ে পাকিস্তান যেভাবে কাশ্মীরে জঙ্গিদের অনুপ্রবেশ ঘটাচ্ছে তা আর কারোর অজানা নেই। আর এই সন্ত্রাসবাদকে হাতিয়ার করেই বারবার পাকিস্তানকে বিপাকে ফেলেছে ভারত। ফলে এখন যেভাবে হোক সেদিক থেকে কাশ্মীরে নজর ঘোরাতে চাইছেন ইমরান।

ভারতকে চাপে রাখতে জম্মু ও কাশ্মীরে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগের আন্তর্জাতিক তদন্তের দাবিতে রাষ্ট্রপুঞ্চে সোচ্চার হয়েছিল পাকিস্তান। কিন্তু সেখানেও ভারতের তরফে ধাক্কা দেওয়া হয় ইসলামাবাদকে। প্রতিবেশী দেশ বিকল্প কূটনীতি হিসেবে সীমান্ত পারে সন্ত্রাস চালাচ্ছে বলে অভিযোগ করে দিল্লি। জানিয়ে দেওয়া হয়, জম্মু কাশ্মীর ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় এবং কারোর হস্তক্ষেপ সহ্য করা হবে না। এরই মধ্যে পাক বিদেশমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি আবার নিজেই বলে বসেন যে জম্মু কাশ্মীর ভারতের রাজ্য। ফলে চাপটা উলটে এসেছে ইমরানের ওপরই।

এই অবস্থায় পথে নেমে ফাঁকা আওয়াজ তোলা ছাড়া আর কোনও উপায় থাকছে না পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর কাছে। বিশেষ করে পাক বিদেশমন্ত্রীর মন্তব্যের পর অনেকটাই অ্যাডভান্টেজে রয়েছে নয়াদিল্লি। তবে সে সব দিকে মনঃসংযোগ না করে সন্ত্রাসবাদের মদতদাতা হিসেবেই পাকিস্তানকে একঘরে করে দেওয়ার পরিকল্পনা করেছে ভারত।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here