বিজেপির সদস্যপদ নিয়েছেন ইমরান খান, দোসর আবার রামরহিম! ভাইরাল ছবি

0
166

মহানগর ওয়েবডেস্ক: দেশজুড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার ধুম পড়েছে। আগে কাজ হত একটা মিস কলেই। কিন্তু এখন অনলাইনে রীতিমতো ফর্ম ফিলআপ করে সদস্যপদ গ্রহণ করতে হয়। তবেই আপনি বিজেপির সদস্য হিসেবে নিজের নাম নথিভুক্ত করতে পারবেন। এর জেরে বিড়ম্বনা অবশ্য কম পোহাতে হচ্ছে না গেরুয়া শিবিরকে। দিনকয়েক আগেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি। যেখানে দেখা গিয়েছিল তৃণমূল নেত্রী নাকি বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। এবার একই বিভ্রাট দেখা গেল পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের ক্ষেত্রেও।

সম্প্রতি হোয়াটস অ্যাপে একটি ছবি ভাইরাল হয়, যেখানে দেখা যাচ্ছে ইমরান খান নাকি বিজেপির সদস্যতা গ্রহণ করেছেন। শুধু তাই নয়, এমনকি ধর্ষণমামলায় দোষী সাব্যস্ত আসারাম ও রামরহিম-ও নাকি বিজেপিতে নাম নথিভুক্ত করেছেন! ই-সদস্যপদের কার্ড সোশ্যাল মিডিয়ায় রীতিমতো ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

এই ঘটনায় ইতিমধ্যেই আহমেদাবাদের শাহপুর থেকে বছর চল্লিশের এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। জানা গিয়েছে, ধৃত ব্যক্তির নাম গুলাম ফরিদ শেখ। সেই ই-সদস্যপদের ছবি বিভিন্ন হোয়াটস অ্যাপ গ্রুপে ভাইরাল করে দেয়। পুলিশ জানাচ্ছে, ওই ধৃত ব্যক্তি নেহাতই মজার ছলে এই কাজ করেছেন নাকি কোনও রাজনৈতিক উদ্দেশ্য রয়েছে তা এখনও নিশ্চিত নয়।

ভাইরাল হওয়া সেই ছবি ঘুরতে ঘুরতে এসে পৌঁছায় বিজেপির সাধারণ সম্পাদক কমলেশ প্যাটেলের হাতে। এই জিনিসটি দেখে চক্ষু চড়কগাছ হয়ে যায় তাঁর। সঙ্গে সঙ্গে তিনি পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেন। তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে গুলাম ফরিদ শেখ নামে ওই ব্যক্তির কথা। সে নিজে বিজেপির সদস্যপদ নেওয়ার পরই ইমরান খান, আসারাম বাপু ও রাম রহিমের ছবি ও তথ্য দিয়ে ফর্ম ফিলআপ করে। তারপর সোশ্যাল মিডিয়ায় ই-সদস্যপদের ওই ছবি ভাইরাল করে দেয় ফরিদ শেখ। ধৃত ব্যক্তির বিরুদ্ধে তথ্য প্রযুক্তি আইনে মামলা রুজু করেছে পুলিশ। এই ঘটনার পর বিজেপি নেতা কমলেশ প্যাটেল বলেন, বিজেপির ভাবমূর্তি নষ্ট করতেই এই ধরনের কাজ করা হয়েছে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here