qureshi_modi_imran

ডেস্ক: ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে মোদী জিতলে পাকিস্তানের সঙ্গে ভারতের আলোচনার পথ আরও প্রশস্ত হবে! এমনই মন্তব্য করে ভারতের রাজনৈতিক মহলকে একেবার তোলপাড় করেছিলেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। এই বক্তব্যকেই হাতিয়ার করে মোদীর বিরুদ্ধে সুর চওড়া করে বিরোধীরা। লোকসভা নির্বাচনের জন্য সেনা-জওয়ানকে ব্যবহার করেছে কেন্দ্র বলে অভিযোগ করা হয়। কিন্তু এই প্রেক্ষিতে মুখ খুলে এবার জল্পনা আরও উস্কে দিলেন পাক বিদেশমন্ত্রীশাহ মেহমুদ কুরেশি। বললেন, ইমরান খান এরকম কিছু বলেননি, তাঁর বক্তব্য অপ্রাসঙ্গিক!

কুরেশির বক্তব্য, ভারতের সরকার এবং মোদী নিয়ে ইমরান খানের যা বক্তব্য তা অতিরঞ্জিতভাবে দেখিয়েছে ভারতের সংবাদমাধ্যম। তাঁর দাবি,

মোদী নিয়ে ইমরানের বক্তব্য সব রেকর্ড করা রয়েছে, এই ধরনের কোনও কথাই তিনি বলেননি! কুরেশি আরও বলেন, ইমরান বা পাকিস্তানের কোনও বক্তব্যই ভারতের নির্বাচনে কোনও প্রভাব ফেলতে পারে না, ওই দেশের জনগণই দেশের সরকার ঠিক করবে।

উল্লেখ্য, বিদেশি কিছু সাংবাদিককে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ইমরান জানান, ভারতের নির্বাচনে যদি কংগ্রেস ক্ষমতায় আসে তবে তারা পাকিস্তানের সঙ্গে কাশ্মীর ইস্যু নিয়ে আলোচনা করতে ভয় পাবে। তবে নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে বিজেপি সরকার এলে আলোচনায় সুবিধাই হবে। এই মন্তব্যের প্রেক্ষিতেই কুরেশি এই বিবৃতি দেন।

বেশকিছুদিন আগে নয়াদিল্লির রোষের মুখে পড়েছিলেন পাক বিদেশমন্ত্রী। তিনি অভিযোগ করেছিলেন, লোকসভা নির্বাচনের মধ্যেই পাকিস্তানে হামলা করতে পারে ভারত। এই মন্তব্যে পাক বিদেশমন্ত্রীর তীব্র নিন্দা করে ভারত জানায়, যদি কোনও হামলার আশঙ্কা থাকে তবে তা জানাতে, হাস্যকর দাবি যেন না করে পাকিস্তান। এই মন্তব্য যেমন দায়িত্বজ্ঞানহীন, তেমনই প্ররোচনামূলক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here