পুরোদস্তুর যুদ্ধের সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে, ফের হুঙ্কার ইমরানের

0
893
kolkata bengali desk

মহানগর ওয়েবডেস্ক: ৩৭০ ধারা বাতিলের পর বহুবার যুদ্ধের হুঙ্কার দিয়েছেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান৷ এর আগে পাক বিদেশমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশিও বলেছিলেন, এই পরিস্থিতিতে যা কিছু হতে পারে৷ এরপরও পাকিস্তান এই হুঙ্কারের রাস্তা থেকে সরে আসেনি৷ সম্প্রতি একটি চ্যানেলে পাক প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য, দু’টো পরমাণু শক্তিধর দেশ যখন লড়ে, সেই লড়াই যদি পুরোদস্তুর যুদ্ধ হয়, তা হলে প্রত্যেক মুহূর্তে এই সম্ভাবনা থাকে যে, সেটা পরমাণু যুদ্ধে গড়াবে। নিয়ন্ত্রণরেখায় সারা বছর ধরে বিনা প্ররোচনায় ২০৫০ বারেরও বেশি সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন করেছে পাকিস্তান। মারা গিয়েছেন ২১ জন ভারতীয়। দিল্লিতে বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র রাভেশ কুমার যখন এই পরিসংখ্যান দিচ্ছেন, তার আগেই ‘পুরোদস্তুর যুদ্ধের সম্ভাবনা’-র কথা বলে দিলেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

রাষ্ট্রসংঘে আসন্ন সাধারণ অধিবেশনে নিজের বক্তৃতার আগে এই হুঁশিয়ারি দিয়ে ইমরান আসলে আন্তর্জাতিক মহলকে কাশ্মীর নিয়ে সক্রিয় হওয়ার জন্য চাপ দিলেন বলে কূটনীতিকদের বক্তব্য। পাক প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, তিনি ‘অবশ্যই’ মনে করেন, ভারত-পাক যুদ্ধের সম্ভাবনা রয়েছে এবং সেই বিপর্যয়ের প্রভাব ভারতীয় উপমহাদেশের সীমানা ছাড়িয়ে যাবে। তাই তাঁরা প্রতিটি আন্তর্জাতিক মঞ্চকে সক্রিয় হতে বলছেন।

এর আগে রাষ্ট্রসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলের সম্মলনের ফাঁকে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে কুরেশি বলেন, ভারত ও পাকিস্তানের উচিত দ্বন্দ্ব মিটিয়ে নেওয়া৷ তবে আকস্মিক যুদ্ধের সম্ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না৷ এই পরিস্থিতি চলতে থাকলে যেকোনও কিছুই ঘটতে পারে৷ তিনি আরও বলেন, রাষ্ট্রসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাই কমিশনার মিশেবল বাকেলেট কাশ্মীরে গিয়ে পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে চান৷ কুরেশি বলেন, তাঁরা কাশ্মীরের পরিস্থিতি নিয়ে আন্তর্জাতিক তদন্তের দাবি জানিয়েছেন৷ কাশ্মীর নিয়ে আন্তর্জাতিক মহলকে পাশে পাওয়ার চেষ্টা করছে পাকিস্তান৷ সেই চেষ্টায় বারবার ব্যর্থ হয়েছে তারা৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here