bengali news on sena

মহানগর ওয়েবডেস্ক: সহজেই নাগরিকত্ব বিল নিয়ে লোকসভার হার্ডল পেরিয়েছে সরকার৷ নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল সংসদের নিম্ন কক্ষে পাশ করাতে তাদের কোনও বেগ পেতে হয়নি৷ প্রাক্তন শরিক শিবসেনা লোকসভায় তাদের নাগরিকত্ব বিল সমর্থন করেছিল৷ রাজ্যসভায় এই বিল পাশ করানো যথেষ্ট কঠিন৷ এরমধ্যে বেসুর গাইতে শুরু করেছে শিবসেনা৷ তারা বলছে, লোকসভার মতো একই কায়দায় তারা ভোট দেবে না৷ কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী বিলের সমর্থনকারীদের তীব্র সমালোচনা করেছেন৷ এদিকে সদ্য বিজেপির হাত ছেড়ে মহারাষ্ট্রে এনসিপি ও কংগ্রেসের সমর্থন নিয়ে সরকার গড়েছে শিবসেনা৷ তাই এখন নতুন শরিককে হয়ত চটাতে চাইছে না সেনা৷ তাই লোকসভায় তারা সমর্থন দিলেও, রাজ্যসভায় ভোল বদল৷ শিবসেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরে বলেন, যে বিষয়গুলো নিয়ে আমরা প্রশ্ন তুলেছিলাম, তা পরিষ্কার না হলে রাজ্যসভায় নাগরিকত্ব বিল নি্য়ে সমর্থনের প্রশ্ন নেই৷ তিনি আরও বলেন, রাজ্যসভায় বিল পেশের আগে সরকারকে কিছু পরিবর্তন করতে হবে৷

শিবসেনা নেতা সঞ্জয় রাউত বলেন, লোকসভার মতো একই কায়দায় আমরা ভোট নাও দিতে পারি৷ উদ্ভূত পরিস্থিতি অনুযায়ী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে৷ উদ্ধব যে কোনও চাপের মুখে ভোদবদল করেননি, তা বোঝাতে বলেন, কে কী ভাবছে, তা শুনে আমি কিছু বলছি না৷ এটা আমার দলের ভাবনা৷ রাহুল গান্ধী টুইটে বলেছিলেন, এই বিলকে সমর্থন করার অর্থ ভারতের মৌলিকত্বের বিরোধিতা৷ রাহুল ট্যুইট করে বলেন, ক্যাব ভারতের সংবিধানের বিরোধিতা৷ এর আগে তাঁর বোন কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়ঙ্কা গান্ধী বঢরা এই নিয়ে আওয়াজ তুলেছিলেন৷ তাঁর কথায়, ক্যাব স্বাধীনতার প্রতি বড় আঘাত৷ আমাদের পূর্বপুরুষরা যে স্বাধীনতা এনে দিয়েছেন, আজ তা সঙ্কটের মুখে৷ এরপরেই সেনার পাল্টি যথেষ্ট ইঙ্গিতবাহী৷

এ প্রসঙ্গে শিবসেনার সাংসদ অরবিন্দ সাওয়ান্ত বলেন, দেশের স্বার্থে আমরা এই বিলকে সমর্থন করেছি। তাহলে মহারাষ্ট্রে কংগ্রেস-এনসিপি-শিবসেনা জোটে কি এর কোনও প্রভাব পড়বে না? এ প্রসঙ্গে সাওয়ান্তের সাফ কথা, অভিন্ন ন্যূনতম কর্মসূচি শুধুমাত্র মহারাষ্ট্রের জন্যই প্রযোজ্য। উল্লেখ্য, মোদী মন্ত্রিসভার সদস্য ছিলেন সাওয়ান্ত। কিন্তু মহারাষ্ট্রে সরকার গড়া নিয়ে টালবাহানার সময় শিবসেনা-কংগ্রেস-এনসিপি জোটের পরই মন্ত্রিত্ব থেকে সরে দাঁড়ান তিনি।শিবসেনার এই পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়েছে বিজেপি। এ প্রসঙ্গে সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী প্রহ্লাদ যোশী বলেন, শিবসেনার কাছে কৃতজ্ঞ। ওরা শেষ পর্যন্ত দেশের স্বার্থ বুঝতে পেরেছে। তাই ওরা সমর্থন জানাল। তাহলে কি বিজেপির সঙ্গে শিবসেনার সম্পর্কের শীতলতা কাটছে? জবাবে তিনি বলেন, এটা ওদের (সেনা) জিজ্ঞেস করলেই ভালো হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here