Home Featured চিন্তার ভাঁজ চিকিৎসক মহলে, করোনা আক্রান্তদের শরীরে সাইটোমেগালো ভাইরাস

চিন্তার ভাঁজ চিকিৎসক মহলে, করোনা আক্রান্তদের শরীরে সাইটোমেগালো ভাইরাস

0
চিন্তার ভাঁজ চিকিৎসক মহলে, করোনা আক্রান্তদের শরীরে সাইটোমেগালো ভাইরাস
Parul

মহানগর ডেস্ক: বর্তমানে দেশ স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেললেও, এখনো তাণ্ডব করে চলেছে মারণ ভাইরাস করোনা। করোনা আক্রান্ত হয়ে ইতিমধ্যেই মৃত্যু হয়েছে কয়েক লক্ষ লক্ষ মানুষের। এছাড়াও করোনা আক্রান্ত হয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছে বহু মানুষ। কিন্তু তারপরেও চিন্তা বাড়াচ্ছে নানান ভাইরাস। সুস্থ হয়ে ওঠার পরে নানান ধরনের সমস্যা দেখা দিচ্ছে শরীরে। সম্প্রতি জানা গিয়েছিল, করোনা থেকে সেরে ওঠার পর শরীরে নতুন করে বাসা বাঁধছে বিভিন্ন ধরনের ফাঙ্গাস। এবার আরও একটি ভাইরাস চিন্তার ভাঁজ ফেলল চিকিৎসা মহলে।

করোনা থেকে সুস্থ হয়ে ওঠার পরে নতুন করে আরও একটি ভাইরাস হানা দিচ্ছে শরীরে। এই ভাইরাসটি হলো সাইটোমেগালো ভাইরাস। যে সব ব্যক্তি একবার করোনা দ্বারা সংক্রমিত হয়েছেন এবং সুস্থ হয়ে উঠেছেন, তাদের শরীরে এই ধরনের নতুন ভাইরাস দেখা দেওয়ার সম্ভাবনা করছে চিকিৎসা মহল। এর কারণ সম্প্রতি দিল্লি গঙ্গারাম হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়ে ওঠার পর সাইটোমেগালো ভাইরাস দেখা দিয়েছে।

এবার প্রশ্ন আসতেই পারে এই সাইটোমেগালো ভাইরাস আবার কি? যেসব মানুষের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম, তাদের জন্য এই ভাইরাস অত্যন্ত উদ্বেগজনক। কিন্তু যাদের শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বেশি তাদের ক্ষেত্রে এটি বিশেষ ভয়ের বিষয় নয়। এই ভাইরাস রক্ত, লালারস, মূত্রের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। খাদ্যনালীতে বিশেষভাবে এই ভাইরাস সংক্রমণ ঘটায়। এমনকি পায়ুদ্বারের কাছের রক্তক্ষরণ হয়।

সর্বভারতীয় এক সংবাদ মাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে যে, করোনা সংক্রমনের ২০ থেকে ৩০ দিনের দিন পর কয়েকজন করোনা রোগীর শরীরে এই সংক্রমণ পাওয়া গিয়েছে। এই সংক্রমনের ফলে প্রচন্ড জ্বর এবং পেটে ব্যথা হয়। যেগুলি এই সংক্রমনের উপসর্গ বলেই ধরা হয়েছে। এবং এর সঙ্গে বিপুল পরিমাণে রক্তক্ষরণ হয়। ইতিমধ্যে একজন রোগী সংক্রমণে মারা গিয়েছে। যাদের শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম এবং কোনও জটিল অসুখে ভুগছে তারা সবার আগে সাইটোমেগালো ভাইরাস দ্বারা সংক্রমিত হতে পারে বলে জানাচ্ছেন চিকিৎসকেরা। মূত্র, রক্ত বা লালারস পরীক্ষা করার পরে কোনও রোগীর শরীরে ভাইরাস রয়েছে কিনা তা টের পাওয়া যাচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here