776071-praveenkakkarhouse

ডেস্ক: নির্বাচনের ঠিক আগে বাড়বাড়ন্ত বেড়েছে কালো টাকার। এদিকে কালো টাকার রহস্য উদ্ঘাটনে তৎপরতা বেড়ছে আয়কর দফতরেরও। বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হচ্ছে প্রথম দফা নির্বাচন তার আগে কমলনাথের পর আয়কর দফতরের চাপে বিপাকে কংগ্রেস। মধ্যপ্রদেশের ভোপালে কালো টাকা কাণ্ডে নাম জড়িয়েছে কংগ্রেস ঘনিষ্ঠ একাধিক ব্যক্তির। গোটা ঘটনায় আয়কর দফতরের নজরে রয়েছে দিল্লির তুঘলক রোডের পার্টি অফিস।

বিগত ২ দিন ধরে মধ্যপ্রদেশের একাধিক জায়গায় হানা দিয়ে এক চক্রের সন্ধান পেয়েছে আয়কর দফতর। ওই চক্রের সঙ্গে ২৮১ কোটি টাকা জড়িয়ে রয়েছে বলে আয়কর দফতর সূত্রে খবর। যার মধ্য থেকে প্রায় ২০ কোটি টাকা হাওয়ালার মাধ্যমে লেনদেন করা হয়েছে কংগ্রেসের একাধিক নেতার বাড়িতে। আয়কর দফতরের তরফে সোমবার দেওয়া বিবৃতি থেকে জানা গিয়েছে, কংগ্রেসের দিল্লির তুঘলক রোডের পার্টি অফিসে কংগ্রেসের একাধিক প্রবীণ কর্মকর্তার বাড়িতে পাঠানো হয়েছে প্রায় ২০ কোটি টাকা। আয়কর দফতরের এই অনুমানের ভিত্তিতে আপাতত নজরে কংগ্রেসের তুঘলক রোডের পার্টি অফিস।

উল্লেখ্য, নির্বাচনের ঠিক আগে দেশজুড়ে কালো টাকার বাড়বাড়ন্ত রুখতে তৎপর নির্বাচন কমিশন থেকে শুরু করে আয়কর দফতর। সেই লক্ষ্যে গোপন খবর পেয়ে বিগত ২ দিন ধরে মধ্যপ্রদেশের একাধিক জায়গায় তল্লাশি চালায় আয়কর বিভাগ। আর সেখান থেকে বিপুল পরিমাণ কালো টাকা উদ্ধার হয়েছে বলে দাবি আয়কর সূত্রে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here