নিজস্ব প্রতিনিধি,ঝাড়গ্রাম: তৃণমূলের এক প্রস্তাবককে গুলি চালানোর ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়াল ঝাড়গ্রামের গোপীবল্লভপুর-২ ব্লকের আঁধারিয়া এলাকায়। ঘটনায় অভিযোগের আঙুল উঠেছে স্থানীয় নির্দল প্রার্থীর বিরুদ্ধে। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছেন নির্দলের ওই প্রার্থী।

পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, সোমবার রাত সাড়ে দশটা নাগাদ নিজের বাড়িতে খেতে বসেছিলেন স্থানীয় তৃণমূলের নেতা বিকাশ নায়েক৷ তার ছেলে সুরজিৎ নায়েকের অভিযোগ, সেই সময় জানলা থেকে তার বাবাকে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে দু্ষ্কৃতীরা৷ এদের কয়েকজনকে দেখেও ফেলে তাদের পরিবারের লোকজন৷ গুলি গিয়ে বিকাশবাবুর বাম হাতে লাগে৷ গুরুতর জখম অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়৷ পরে ওই রাতেই ঝাড়গ্রাম হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে৷ খবর পেয়ে এলাকায় বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছয়।

বিকাশবাবু তপসিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের আঁধারিয়া বুথের তৃণমূল প্রার্থী নিরঞ্জন দাসের প্রস্তাবক ও নির্বাচনি এজেন্ট৷ বিকাশবাবুর পরিবার অভিযোগের আঙুল তুলেছেন আঁধারিয়া বুথের নির্দল প্রার্থী ভবেশ পানির বিরুদ্ধে। তপসিয়া অঞ্চল তৃণমূল সভাপতি এবং আঁধারিয়া বুথের তৃণমূলের প্রার্থী নিরঞ্জন দাসও অভিযোগ তুলেছেন ভবেশ পানির দিকে।

তবে তার দিকে ওঠা অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে ভবেশবাবু বলেন, ‘বুথ কমিটি এবং গ্রামবাসীরা আলোচনা করে আমাকে তৃণমূলের প্রার্থী হিসেবে মনোনিত করেছিল। তাই আমি তৃণমূল প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন জমা করেছিলাম। কিন্তু শেষ পর্যন্ত টিকিট না পাওয়ায় আমি নির্দল হয়ে লড়ছি বলে আমার উপর মিথ্যা অভিযোগ চাপানো হচ্ছে। আমি কখনই এই ঘটনার সাথে জড়িত নই। আমি এখনও তৃণমূলেরই কর্মী।’

এই বিষয়ে ঝাড়গ্রাম জেলা তৃণমূলের সভাপতি অজিত মাইতি বলেন ‘ঘটনার কথা আমি শুনেছি। তবে ঠিক কি ঘটনা ঘটেছে তা খোঁজ-খবর নিয়ে দেখছি।’

উল্লেখ্য, তপসিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতে মোট আসন সংখ্যা ১২টি। এর মধ্যে তিনটি আসনে তৃণমূল বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয় লাভ করেছে। আঁধারিয়া বুথটিতেও তৃণমূল বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জিতে গিয়েছিল। এই আসনে লড়ার জন্য মনোনয়নপত্র তুলেছিলেন তৃণমূল নেতা ভবেশ পানি। এরপর কোর্টের নির্দেশে নির্বাচন কমিশন মনোনয়নপত্র জমা করার দিন একদিন বাড়িয়ে দেয়৷ মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিনে আঁধারিয়া আসনে তৃণমূলের টিকিট পেয়ে প্রার্থী হন তপসিয়া তৃণমূল অঞ্চল সভাপতি নিরঞ্জন দাস। ভবেশ পানি টিকিট না পেয়ে নির্দল প্রার্থী হন। আধারিয়া আসনটিতে এবারে তৃণমূল বনাম নির্দলের লড়াই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here