কাশ্মীরকাণ্ডের জেরে পাকিস্তান থেকে ডেভিস কাপ সরানোর অনুরোধ ভারতের

0
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বাতিলের পর ফের ভারত-পাকিস্তানের কূটনৈতিক সম্পর্ক তলানিতে এসে ঠেকেছে৷ এই অবস্থায়  চলতি বছরের ১৪ ও ১৫ সেপ্টেম্বর পাকিস্তানের মাটিতে ভারতের ডেভিস কাপ খেলা নিয়ে সংশয় বেড়ে গিয়েছে৷ এতটাই যে ভারতী আগামীয় টেনিস নিয়ামক সংস্থা এআইটিএ পাকিস্তানে না খেলার আর্জি আন্তর্জাতিক টেনিস ফেডারেশনকে জানাবে৷ ইতিমধ্যেই ফেডারেশনের তরফে প্লেয়ারদের ভিসার কাজও শুরু করে দেওয়া হয়েছিল। ভারতের সেরাদের নিয়েই তৈরি করা হয়েছে ডেভিস কাপ দল৷ দীর্ঘদিন পর আবার পাকিস্তানের মাটিতে ডেভিস কাপ হওয়ার কথা ছিল। ভারতের খেলতে যাওয়ার কথা সেখানে।

ভারতের টেনিস ফেডারেশন (এআইটিএ) সচিব হিরন্ময় চট্টোপাধ্যায় জানান, দুই দেশের কূটনৈতিক সম্পর্কর প্রভাব হয়তো খেলার ওপর প্রভাব ফেলবে। খেলতে যাওয়া নিয়ে অবশ্য চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত তিনি এখনই নিতে চাইছেন না৷ এর জন্য আরও কয়েক দিন অপেক্ষ করতে চান তিনি৷ এরপর তিনি আন্তর্জাতিক টেনিস ফেডারেশনকে বিষয়টি দেখার আর্জি জানাবেন৷ তাঁর কথায়, যদি প্রয়োজন হয় তা হলে খেলাটাকে কোনও নিরপেক্ষ ভেন্যুতে নিয়ে যাওয়ার অনুরোধ জানাব। তিনি আরও জানান, পাকিস্তান যদি ভিসা না দেয় তাহলে আমরা কী করে পাকিস্তানে খেলতে যাব? ওরা হয়তো ভিসা দেবে না। এবং ওরা যদি ভিসা দেয়, তাহলে কি ওরা আমাদের পর্যাপ্ত নিরাপত্তা বা স্বস্তি দিতে পারবে? এই মুহূর্তে এআইটিএ এরকমই অনেক প্রশ্নের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে।

৫৫ বছর পাকিস্তানে ডেভিস কাপ খেলতে যায়নি ভারত৷ এবার একটা সম্ভাবনা তৈরি হয়েছিল৷ উল্লেখ্য ১৯৬৪-র পর কোনও ভারতীয় ডেভিস কাপ দল পাকিস্তানে যায়নি। ২০০৮-এ মুম্বই আক্রমণের পর থেকে ভারতের সঙ্গে পাকিস্তানের ক্রিকেটার মাঠও দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক নেই। তিনি জানান, পাকিস্তান অনেক খেলাই নিরপেক্ষ ভেন্যুতে খেলে। তাই আমরাও তার আর্জি জানাতে পারি। কারন পরিস্থিতি এখন খুব একটা অনুকূল নয়। আইটিএফকে ভাবতে হবে। কিন্তু আমরা বলছি না আমরা পাকিস্তানে খেলতে যাব না। আমি সেই রাস্তায় হাঁটতে চাই না। আমি চাই না দল জরিমানার মুখে পড়ুক। নিরাপত্তার গণ্ডি তৈরি করেছে আইটিএফ ,আমরা করিনি। কোনও দুর্ঘটনা ঘটে গেলে দায় গিয়ে পড়বে আইটিএফ-এর ওপরই। সে কারনে ওদের বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে দেখতে হবে। এ ছাড়া কেন্দ্র সরকারের মতও জানতে হবে ভারতীয় টেনিস ফেডারেশনকে। তিনি বলেন, পাকিস্তান টেনিস ফেডারেশনের সঙ্গে এআইটিএ-র সম্পর্ক যথেষ্ট ভাল। তবে এটা দুই দেশের মধ্যের বিষয়। আমরা অপেক্ষা করছি আইটিএফ ও সরকারের মন্তব্যের জন্য।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here