Home Featured বন্ধু পড়শি দেশে অস্ত্র সরবরাহ করবে ভারত, ঘোষণা রাজনাথের

বন্ধু পড়শি দেশে অস্ত্র সরবরাহ করবে ভারত, ঘোষণা রাজনাথের

0
বন্ধু পড়শি দেশে অস্ত্র সরবরাহ করবে ভারত, ঘোষণা রাজনাথের
Parul

মহানগর ডেস্ক: এবার থেকে ভারত অত্যাধুনিক অস্ত্র,মিসাইল এবং অন্যান্য ইলেকট্রনিক যুদ্ধাস্ত্র রপ্তানি করতে চলেছে। বৃহস্পতিবার এমনটাই জানালেন কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিংহ। ভারত এই অস্ত্র মূলত ভারতীয় মহাসাগর অন্তর্গত বন্ধুদেশের কাছে এই অস্ত্রাদি সরবরাহ করবে।

আর কিছুদিনের অপেক্ষা মধ্যেই ১৫টি চপার আসতে চলেছে ভারতীয় প্রতিরক্ষা বাহিনীর হাতে। এরমধ্যে দশ’টি পাবে ভারতীয় বায়ুসেনা এবং আর পাঁচটি পাবে ভারতীয় সেনাবাহিনী। কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ বুধবারই ভারতীয় যুদ্ধবিমান প্রস্তুতকারক সংস্থা হ্যাল(Hindusthan Aeronautics Limited) এর হাতে ৪৮ হাজার কোটি টাকার চুক্তি তুলে দেন। এই অর্থ দিয়ে হ্যাল ৮৩টি হালকা যুদ্ধ বিমান ‘এমকে-১এ’ জেট  প্রস্তুত করবে। এই যুদ্ধবিমান গুলি শীঘ্রই ভারতীয় বায়ুসেনার অংশ হিসাবে যোগ দেবে। প্রথম তিন বছরের মধ্যে ভারতের হাতে আসবে একটি ‘এমকে-১এ’ যুদ্ধবিমান। সবকটি যুদ্ধবিমান হাতে আসতে ২০৩০ সাল পর্যন্ত সময় লেগে যাবে বলে জানানো হয়। এই চুক্তিতে মোট ৭৩টি ‘এমকে-১এ’ যুদ্ধবিমান এবং ১০টি এলসিএ এমকে-১ ট্রেনার এয়ারক্রাফট তৈরি করা হবে।

এয়ারো-ইন্ডিয়া অনুষ্ঠানে এই প্রসঙ্গে রাজনাথ বলেন, ‘আমি অত্যন্ত আনন্দিত যে হ্যাল এই বরাত পেয়েছে। এই বরাত অনুযায়ী হ্যাল সম্পূর্ণ দেশীয় প্রযুক্তিতে ৮৩টি এলসিএ তেজস এমকে-১এ তৈরি করবে।’

আত্মনির্ভর ভারত প্রকল্পের ওপর জোর দিয়ে বুধবার শুরু হয়েছে অ্যারো ইন্ডিয়া ২০২১। বেঙ্গালুরুতে আগামী তিন দিন এরো ইন্ডিয়া ২০২১-এর অনুষ্ঠান হবে। এটাই ভারতে প্রথম হাইব্রিড শো। অর্থাৎ এই অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি অংশগ্রহণের পাশাপাশি শারীরিকভাবে অংশ নেওয়ার সুযোগ থাকছে।

জানা গিয়েছে, বিশ্বের প্রায় ১৪টি দেশ এই অনুষ্ঠানে অংশ নিচ্ছে। অংশ নিচ্ছে বিশ্বের মোট ৬০১টি সংস্থা। তারমধ্যে ৫২৩টি ভারতীয় সংস্থা ও ৭৮টি বিদেশি সংস্থা। রাফাল প্রস্তুত কারক সংস্থা দাসোর পাশাপাশি লকহেড মার্টিন, এয়ারবাসের মতো সংস্থা এই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করছে। প্রথমবারের জন্য হিন্দুস্তান অ্যারোনটিক্স লিমিটেড বিশাল আকারের হেলিকপ্টার ও বিমান প্রদর্শন করবে বলে জানা গিয়েছে। এছাড়া এই অনুষ্ঠানের অন্যতম আকর্ষণ হল মার্কিন বোমারু বিমান বি ১ বি ল্যান্সার। এই বোমারু বিমানকে বিশ্বের সব থেকে বিপজ্জনক বিমান বলা হয়ে থাকে। এই বিমানটি যে কোনও ধরনের অস্ত্র বহন করতে সক্ষম। এই অনুষ্ঠানের মহড়া হয়ে গিয়েছে মঙ্গলবার।

এই প্রসঙ্গে প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং বলেন, একদিকে দেশে করোনা মহামারীর আকার ধারণ করেছে। অন্য দিকে, সীমান্তে চোখ রাঙাচ্ছে চিন। এই সাঁড়াশি আক্রমণের মাঝে এই ধরনের অনুষ্ঠানের সিদ্ধান্ত নেওয়া মোটেই সহজ ছিল না। তিনি জানিয়েছেন অ্যারো ইন্ডিয়া ২০২১ অনুষ্ঠানে ২০০টির বেশি মৌ চুক্তি হতে পারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here