মহানগর ওয়েবডেস্ক: করোনা পরিস্থিতির মাঝেই উত্তর কোরিয়ার দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিল ভারত। শুক্রবার কিম জং উনের দেশে ১০ লক্ষ ডলারের ওষুধ পাঠিয়েছে ভারত। এমনটাই জানানো হয়েছে বিদেশ মন্ত্রকের পক্ষ থেকে। আসলে সেদেশে কিছু ওষুধের অভাব দেখা দেওয়ায় ভারতের কাছে সাহায্যের আবেদন করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। এর পরেই মানবিকতার খাতিরে উত্তর কোরিয়ার দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে ভারত।

বিদেশ মন্ত্রকের থেকে জানানো হয়েছে, উত্তর কোরিয়ার ওষুধের অভাব দেখা দেওয়ায় ভারত সাহায্য না করে থাকতে পারেনি। মানবিকতার খাতিরেই ১ মিলিয়ন ডলারের টিউবারকুলসিস বা যক্ষার ওষুধ উত্তর কোরিয়ায় পাঠানো হয়েছে। আসলে উত্তর কোরিয়ার যক্ষা দূর করতে বিশেষ সক্রিয় হু। সেই জন্য যক্ষার ওষুধের ঘাটতি হওয়ায় ভারতের কাছে সাহায্য চেয়েছিল হু।

সম্প্রতি উত্তর কোরিয়ার সর্বাধিনায়ক কিম নিজের ‘মার্শাল’ উপাধি পাওয়ার অষ্টম বর্ষপূর্তি পালন করেন। সেই কারণে ১৬ জুলাই ভারতের পক্ষ থেকে তাঁকে ফুলের তোড়া ও শুভেচ্ছা বার্তা পৌঁছে দেন পিয়ংইয়ংয়ে নিযুক্ত ভারতীয় রাষ্ট্রদূত অতুল মালহারি গোৎসার্ভে। এছাড়া এর আগে ২০১১ ও ২০১৬ সালে উত্তর কোরিয়ায় ১ মিলিয়ন ডলারের খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিয়েছিল ভারত।

২০১৮ সালে তৎকালীন বিদেশমন্ত্রকের রাষ্ট্রমন্ত্রী ভিকে সিং উত্তর কোরিয়ার শেষ গিয়েছিলেন। সেবার প্রায় দুই দশক পর কোনও ভারতীয় মন্ত্রী উত্তর কোরিয়ায় যান। তার আগে ১৯৯৮ সালে বাজপেয়ী সরকারের তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী মুখতার আব্বাস নকভি পিয়ংইয়ং ফিল্ফ ফেস্টিভ্যালে আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে গিয়েছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here