imran bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: রাষ্ট্রসংঘের ৭৫ তম সাধারণ অধিবেশনে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বক্তব্যে কাশ্মীর প্রসঙ্গ আসতেই প্রতিবাদে সভা থেকে ওয়াক আউট করেন ভারতীয় প্রতিনিধি দল। ভারতের অভ্যন্তরীণ ব্যাপারে ইমরান খানের মন্তব্য কূটনৈতিক সম্পর্ককে নতুন করে ক্ষতিগ্রস্ত করল বলে জানিয়েছেন রাষ্ট্রসংঘে ভারতের স্থায়ী প্রতিনিধি টিএস ত্রিমূর্তি।

একটি টুইট করে ত্রিমূর্তি জানিয়েছেন, ‘’রাষ্ট্রসংঘের ৭৫ তম সাধারণ অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বক্তৃতা কূটনৈতিক সম্পর্ককে নতুন করে নিম্নগামী করল। (তার বক্তৃতা) আর একটি বিরক্তিকর বিদ্বেষপূর্ণ মিথ্যাচার, ব্যক্তিগত আক্রমণ, যুদ্ধবাজ মানসিকতা, নিজেদের দেশের সংখ্যালঘুদের প্রতি  অত্যাচার ও সীমান্ত সন্ত্রাসবাদিতার প্রতিফলন।‘’

ইমরান খানের  বক্তৃতার কয়েক ঘণ্টা পর ভারতীয় প্রতিনিধিদলের সদস্য মিজিতো ভিনিতো ভারতের পক্ষ থেকে জানান, ‘’কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল জম্মু ও কাশ্মীর ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ। জম্মু ও কাশ্মীরের আইন ও নিয়ম কঠোর ভাবেই ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়।‘’ ইমরান খান তার বক্তব্য পেশ করতে গিয়ে বলেন, ‘’পাকিস্তান সবসময়ই শান্তিপূর্ণ সমাধানের আহ্বান জানিয়েছে। ভারতকে ২০১৯ সালের ৫ অগস্টে নেওয়া পদক্ষেপ প্রত্যাহার করতে হবে।‘’ উল্লেখ্য ওই দিনই ৩৭০ ধারা বাতিল করে  জম্মু ও কাশ্মীরকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল বলে ঘোষণা করা হয়।

ইমরানের খানের বক্তব্যের বিরুদ্ধে প্রতিবাদের মাত্রা চড়িয়ে ভারতের পক্ষ থেকে বলা হয়, ‘’কাশ্মীর সংক্রান্ত একটিই বিরোধ রয়েছে। কাশ্মীরের একটি অংশকে বেআইনি ভাবে দখল করে রাখা হয়েছে। আমরা পাকিস্তানকে জানাচ্ছি বেআইনি অঞ্চলের দখল তারা ছেড়ে দিক।‘’ কাশ্মীর প্রসঙ্গে ইমরান খান এই একই ভাষায় ভারতকে আক্রমণ করেছেন।

ভারতের প্রতিনিধি দলের প্রধান সচিব মিজিতো ভিনিতো পাক প্রধানমন্ত্রীর আক্রমণের উত্তরে বলেন, ‘’এই সভাকক্ষ এমন একজনের অবিচ্ছিন্ন বাচালতা শুনেছে যার নিজের সম্পর্কে বলার কিছু নেই। কোনও সাফল্য নেই যা বলতে পারে, এবং দুনিয়াকে দেওয়ার মতো কোনও যুক্তিপূর্ণ পরামর্শ নেই। তার বদলে আমরা দেখলাম মিথ্যা, ভুল তথ্য, যুদ্ধবাজ মানসিকতা এবং সভার মাধ্যমে বিদ্বেষ ছড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা। যে শব্দ এই মহান সভায় পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ব্যবহার করেছেন সেটা রাষ্ট্রসংঘের মূল নীতিকেই অসম্মান করে।‘’ এই প্রসঙ্গে ভিনিতো স্মরণ করিয়ে দেন, এই ইমরান খান হচ্ছেন সেই ব্যক্তি যিনি নিজের দেশের সংসদে ওসামা বিন লাদেন’কে শহীদ বলে সম্মান জানিয়েছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here