ডেস্ক: ভারত-ভূটান-চীন সীমান্তে ডোকালাম সঙ্কটের স্মৃতি এখনও টাটকা৷ তারই মধ্যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর চীন সফর দু’দেশের সম্পর্কে আলাদা তাৎপর্য তৈরি৷ কূটনৈতিক বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, ডোকালাম এখন অনেকটাই অতীত৷ আর সেই অতীতের তিক্ততা ভুলে দুই প্রতিবেশি ভারত ও চীন নতুন অধ্যায় রচনা করতে চলেছে৷ মোদীর এবারের চিন সফর দুই দেশের উত্তেজনাকে পাস কাটিয়ে বন্ধুত্বের পরিবেশ তৈরি করেছে বলেই মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল৷ আর সেই পরিবেশকে কাজে লাগিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সফর চলাকালীন ভারতের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে,তিব্বতের চীন সীমান্তে আরও ৯৬টি নতুন বর্ডার আউট পোস্ট তৈরি করা হবে। নতুন করে ৯৬টি আউটপোস্ট বাড়লে আইটিবিপি’র পোস্টের সংখ্যা হবে মোট ২৭২টি। বর্তমানে সেখানে পোস্টের সংখ্যা ১৭৬।

উল্লেখ্য, আন্তর্জাতিক মানচিত্র অনুযায়ী ভারত ও চীনের মধ্যে ৩ হাজার ৪৮৮ কিলোমিটার সীমান্ত রয়েছে। সেখানেই ইন্দো-তিব্বত বর্ডার পুলিসের(আইটিবিপি) আরও ৯৬টি আউটপোস্ট তৈরি করা হবে বলে চীনের প্রেসিডেন্ট জিনপিংকে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী মোদী।

শনিবার চীন সফরের দ্বিতীয় দিন সকালেও মুখোমুখি হয়েছিলেন দু’দেশের রাষ্ট্রপ্রধান। শুরুতেই নৌকাবিহারে যান মোদী এবং জিনপিং। এই ভ্রমণের মাঝেই একাধিক ইস্যু নিয়ে আলোচনা গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা হয় দুই রাষ্ট্রপ্রধানের মধ্যে। মোদী চীনা প্রেসিডেন্টের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন অনুপ্রবেশ ইস্যুতে৷ অন্যায়ভাবে ভারতীয় ভূখণ্ডে চীনা লালফৌজের অনুপ্রবেশ নয়াদিল্লি যে ভাল নজরে দেখছে না, সে বিষয়টিও জিনপিংয়ের সামনে তুলে ধরেন মোদী৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here