প্রতিরক্ষা ব্যবসা পৌঁছতে পারে ১৮০০ কোটি ডলারে! ভারত-মার্কিন সম্পর্কে উচ্ছ্বসিত পেন্টাগন

0
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ক্ষমতায় আসার পর থেকেই আরও উন্নত হতে শুরু করেছে ভারত-মার্কিন সম্পর্ক। এই কৃতিত্ব অনেকটাই প্রাপ্য মোদীর বিদেশনীতির। দু’দেশের কাছে আসার পেছনে মূল কারণ যে ব্যবসা তা কার্যত স্পষ্ট করে দেওয়া হয়েছে আমেরিকার পক্ষ থেকে। পেন্টাগনের তরফে জানানো হয়েছে, নয়াদিল্লি ও ওয়াশিংটনের সামরিক ব্যবসার মাত্রা রেকর্ড মাত্রা ছুঁয়ে ফেলেছে। যা আগে কখনও হয়নি। টাকার অংক কষলে যা প্রায় ১৮০০ হাজার কোটি ডলারে পৌঁছে যেতে পারে চলতি বছরের শেষ।

শক্তিধর যে কোনও দেশের কূটনৈতিক সম্পর্ক মূলত নির্ভর করে থাকে তাদের ব্যবসার ওপর। বস্তুত আমেরিকা যে নিজেদের সামরিক শক্তির জেরেই গোটা বিশ্বকে শাসন করতে চায়, তাও অলিখিতভাবে সত্য। আর সেই সূত্র ধরেই ভারতের সঙ্গেও সামরিক ব্যবসা ফেঁদে ফেলেছে আমেরিকা। আর সেই কারণেই আগামী সপ্তাহে দিল্লিতে বসছে ভারত-পাকিস্তানের ‘ডিফেন্স টেকনোলজি অ্যান্ড ট্রেড ইনিসিয়েটিভ’ (ডিটিটিআই) বৈঠক। যেখানে দুই দেশের প্রতিরক্ষা সংক্রান্ত চুক্তি নিয়ে আলোচনা করা হবে। বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন মার্কিন প্রতিরক্ষা আধিকারিক অ্যালেন লর্ড। থাকবেন ভারতের প্রতিরক্ষা সংক্রান্ত সচিব অপূর্ব চন্দ্রও। এই হেভিওয়েট বৈঠকের আগেই দু’দেশের প্রতিরক্ষা জনিত সম্পর্ক নিয়ে পঞ্চমুখ হয়েছে পেন্টাগন।

ইতিমধ্যেই ভারত-মার্কিন একাধিক প্রতিরক্ষা চুক্তি হয়েছে। আরও বেশ কিছু চুক্তি হওয়ার অপেক্ষাতেও রয়েছে উভয় দেশ। তবে ভারত অন্য কোনও দেশের সঙ্গে প্রতিরক্ষা চুক্তি করলে তা খুব একটা ইতিবাচক নজরে দেখছে না আমেরিকা। যার জলজ্যান্ত উদাহরণ রাশিয়ার সঙ্গে ভারতের এস-৪০০ মিসাইল চুক্তি। এই নিয়ে নয়াদিল্লিকে রক্তচক্ষু দেখাতে পিছুপা হননি ট্রাম্প। তবে নরেন্দ্র মোদীর ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ প্রকল্প বিদেশি সামরিক অস্ত্র প্রস্তুতকারক কোম্পানিগুলিকে অনেকটাই আগ্রহী করেছে ভারতের সঙ্গে চুক্তি করার ক্ষেত্রে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here