corona india chaina

মহানগর ওয়েবডেস্ক: করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে ভারত খুব দ্রুত মুক্তি পাবে, এমনই আশার কথা শোনাল চিনের ভারতীয় দুতাবাসের সরকারি মুখপাত্র। কোভিড–১৯ সংক্রমণ প্রতিরোধ যুদ্ধে ভারতকে সাধ্যমতো সহায়তার করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে নয়া দিল্লির চিনা দূতাবাসের মুখপাত্র কাউন্সিলর জি রঙ বলেন, ইতিমধ্যেই চিনের উদ্যোগপতিরা ভারতের করোনাভাইরাস প্রতিরোধের তহবিলে অনুদান পাঠানো শুরু করেছেন। ভারতের প্রয়োজন অনুযায়ী আরও সহায়তা ও সাহায্যের জন্য চিন প্রস্তুত বলে জানান তিনি। এই সংকটের সময়ে প্রয়োজনীয় তথ্য আদানপ্রদানের মাধ্যমে চিন ও ভারত পরস্পরকে সহায়তা করে চলেছে বলেও মন্তব্য করেন কাউন্সিলর।

গত বছর নভেম্বর মাসে চিনের উহান শহরে প্রথম করোনাভাইরাসের খোঁজ মেলে। তারপর থেকে এই সংক্রমণে আক্রান্ত হয়েছেন সে দেশের ৮১ হাজার মানুষ, যার মধ্যে মৃত্যু ঘটেছে ৩২০০ জনের। মহামারীতে দিশাহারা সময়ে ভারত সমস্ত কূটনৈতিক বিবাদ দূরে সরিয়ে রেখে চিনের পাশে এসে দাঁড়ায়। মহামারী প্রতিরোধে ভারত ১৫ টন চিকিৎসা সামগ্রী চিনে পাঠায় যার মধ্যে ছিল মাস্ক, গ্লাভস ও প্রয়োজনীয় চিকিৎসার যন্ত্রাংশ। সেই সহায়তার কথা কৃতজ্ঞতার সঙ্গে স্মরণ করে জি রঙ বলেন, ”ভারত আমাদের চিকিৎসা সামগ্রী পাঠিয়েছে। ভারতীয় জনগণ বিভিন্ন ভাবে মহামারীর সঙ্গে যুদ্ধে আমাদের সহায়তা করেছেন। আমরা সেই সহায়তার জন্য প্রশংসা ও ধন্যবাদ জানাচ্ছি।”

ভারতে কোভিড–১৯ আক্রমণের সঙ্গে সঙ্গে চিন প্রতিরোধ ও চিকিৎসা পদ্ধতি সংক্রান্ত তথ্য যোগান দিয়ে সহায়তা করেছে জানিয়ে দুতাবাসের মুখপাত্র জানান, সম্প্রতি একটি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ভারত সহ ১৯টি দেশের সঙ্গে চিন করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধ বিষয়ে তাঁদের অভিজ্ঞতা জানিয়েছে।

জি রঙ তাঁর বিবৃতিতে জানান, ”আমরা বিশ্বাস করি ভারতের জনগণ খুব দ্রুত এই (করোনাভাইরাস সংক্রমণের বিরুদ্ধে) যুদ্ধে জয়লাভ করবে। ভারত সহ অন্যান্য দেশের সঙ্গে একযোগে চিন এই ভাইরাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ চালিয়ে যাবে। সমস্ত শক্তি ও অভিজ্ঞতা বিনিময়ের মাধ্যমে জি২০ ও ব্রিক্স (BRICS) অন্তর্ভুক্ত দেশগুলির সঙ্গে বিশ্বের সমস্ত মানুষের উন্নতিকল্পে চিন কাজ করবে।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here