শামির আগুনে পেসে ঝলসে গেল প্রোটিয়ারা, ২০৩ রানে জিতে সিরিজ শুরু কোহলিদের

0
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: পঞ্চম দিনে মাথার ওপর ৩৮৪ রানের বোঝা নিয়ে বিশাখাপত্তনমে ব্যাট করতে নেমেছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। হাতে ছিল ৯ উইকেট। ভাঙা উইকেট, বনবন করে বল ঘুরছে। এই অবস্থায় প্রোটিয়াদের যে কঠিন পরীক্ষা দিতে হবে তা জানাই ছিল। কিন্তু পরীক্ষায় পাশ করার চেষ্টা ব্যর্থই হল। প্রত্যাশামতোই গান্ধী-মেন্ডেলা সিরিজের প্রথম টেস্ট জিতে নিল ভারত। ফলে মহাষ্টমীর পুজোয় আপামর ভারতীয়দের সেরা উপহার দিয়ে দিলেন কোহলিরা। ১-০ ফারাকে সিরিজ এগিয়ে রইল ভারত।

জয়ের গন্ধ পঞ্চম দিনের শেষেই পেয়ে গিয়েছিল ভারত। অপেক্ষা ছিল কতক্ষণে জয় আসবে। পাহাড়প্রমাণ স্কোর তাড়া করতে নেমে শেষদিন ব্যাট ধরেই তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়তে থাকে দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটিং লাইনআপ। সম্মানজনক স্কোর বলতে একা ওপেনার মার্ক্রামের, ৩৯। তিনি ছাড়া আরও ব্যাটসম্যান ক্রিজে টিকে থাকার মানসিকতা দেখাননি। প্রথম ইনিংসে অশ্বিনের ঘূর্ণি কুপোকাত করেছিল প্রোটিয়াদের। দ্বিতীয় ইনিংসে ৪ উইকেট তুলে ভেল্কি দেখান স্যর রবীন্দ্র জাডেজা। প্রথম ইনিংসে হতাশ করলেও দ্বিতীয় ইনিংসে জ্বলে ওঠেন শামি। প্রতিকূল পরিবেশ সত্ত্বেও সকালের আবহাওয়া ও নতুন বলের শাইন কাজে লাগিয়ে ৫ উইকেট তুলে নেন বাংলার পেস ব্যাটারি মহম্মদ শামি। অন্যদিকে অশ্বিন ১টি উইকেট পান।

তবে দক্ষিণ আফ্রিকার শুরুর দিকের ব্যাটসম্যানরা যতটা আলগা শট খেলে আউট হয়েছিলেন, ততটাই কাঠিন্য দেখালেন টেলএন্ডাররা। ডু-প্লেসিসরা ৭০ রানে ৮ উইকেট হারানোর পর মনে হচ্ছিল লাঞ্চের আগেই গুটিয়ে যাবে তাদের ইনিংস। কিন্তু ভারতীয় বোলারদের সামনে দশম উইকেটে প্রাচীর হয়ে দাঁড়িয়ে পড়েন ডেন পিডেট ও মুথুস্বামী। দু’জনে মিলে অনেকক্ষণ ভারতীয় বোলারদের ঘাম ঝরান। প্রথম সারির ব্যাটসম্যানদের থেকে বেশি একাগ্রতা ও ক্রিজে টিকে থাকার মানসিকতা দেখান এই দু’জন। দশম উইকেটে ৯১ রান যোগ করে সাজঘরে ফেরেন এই জুটির মেরুদণ্ড পিডেট (৫৬)। অপর কারিগর মুথুস্বামী ৪৯ বানিয়ে নটআউট থাকেন। এরপরই আসে শেষ কাঙ্খিত উইকেট। ২০৩ রানে প্রথম টেস্ট ম্যাচ জিতে নেয় ভারত। যার ফলে এগিয়ে থেকেই টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ অভিযান শুরু করে ভারত।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here