যুদ্ধবিমান ভাঁড়ারে পড়েছে টান, ভারতীয় বায়ুসেনা কিনবে ১১৪টি নতুন বিমান

0
418

মহানগর ওয়েবডেস্ক: দীর্ঘ ১০ বছর পর ভারতীয় বায়ুসেনায় সামিল হওয়ার দোরগোড়ায় দাঁড়িয়ে রাফাল যুদ্ধবিমান। তবে লম্বা সময় কেটে যাওয়ার কারণে অন্যান্য শক্তিধর দেশের থেকে তুলনায় অনেকটাই পিছিয়ে পড়েছে ভারতীয় বায়ুসেনা। প্রায় এক দশক ধরে কোনও নতুন যুদ্ধবিমান সামিল হয়নি। ফলে বোমারুদের ভাঁড়ারে বেশ ভালই টান পড়েছে বলা যায়। এমতবস্থায় যুদ্ধকালীন তৎপরতায় নয়া ১১৪টি বিমান কেনার প্রস্তুতি নিচ্ছে ভারতীয় বায়ুসেনা। কেননা ‘বুড়ো’ মিগ যুদ্ধবিমানগুলিকে বাতিল করার প্রক্রিয়া ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে। আর যথাযথ সময়ে নয়া বোমারু এসে না পৌঁছলে তা দেশের নিরাপত্তাকেই বড়সড় প্রশ্নের মুখে ফেলে দেবে।

রাফাল যুদ্ধবিমানগুলির চুক্তি ১২৬ থেকে ৩৬-এ নেমে আসার পরই উদ্বেগ প্রকাশ করেছিল ভারতীয় বায়ুসেনা। জানিয়ে দেওয়া হয়, অবিলম্বে ১১৪টি বিমান দরকার। আর সেই বিমান কিনতে ১৫ বিলিয়ন অর্থাৎ ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ১৫০০ কোটির চুক্তি করতে তৈরি বায়ুসেনা। এই বিরাট অঙ্কের চুক্তি পেয়ে ইতিমধ্যেই নানা সংস্থা দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছে। যার মধ্যে বোয়িং, লকহিড মার্টিন, ইউরোফাইটারের মত আন্তর্জাতিক সংস্থাও রয়েছে। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সেই শূন্যস্থান ভরে ফেলতে মরিয়া বায়ুসেনাও। সূত্র মারফত জানা গিয়েছে, অন্যান্যবার যেভাবে ক্রমশ বিমান কেনার প্রক্রিয়া বিলম্বিত হতে থেকেছে তাতে ক্ষতি হয়েছে বিমান বাহিনীরই। সেই কারণে এবার আর প্রক্রিয়ায় দেরি হোক এমনটা চাইছে না বায়ুসেনা। যত তাড়াতাড়ি বিমান হাতে পাওয়া যায় সেই দিনেই মূল লক্ষ্য রেখেছেন আধিকারিকরা।

প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তানের কাছে অত্যাধুনিক মানের এফ-১৬ বিমান থাকলেও ভারত এখনও কিছুটা পিছিয়ে রয়েছে। সেই অভাব রাফাল এলে অবশ্যই পূরণ হবে। কিন্তু খামতিটা অনেকটাই বেশি। তাই মাত্র ১১৪টি রাফাল কখনই বায়ুসেনাকে পূর্ণ শক্তি প্রদান করতে পারতে পারবে না। সেই কারণের তড়িঘড়ি এই চুক্তি সেরে ফেলতে চাইছে বায়ুসেনা। তবে এই চুক্তির জন্য যে টেন্ডার ডাকা হবে তাতে ড্যাসল্ট এভিয়েশন থাকবে না বলেই জানা গিয়েছে। কারণ এই সংস্থাই বর্তমানে ভারতের জন্য ৩৬টি রাফাল নির্মাণে ব্যস্ত। ফলে অন্যান্য কোম্পানিগুলির মধ্যে যে কোনও সংস্থা বাকি ১১৪টি বিমানের বরাত পেতে পারে। তবে ১১৪টি বিমানের বরাত একটি সংস্থাই পাবে নাকি ভাগ করে দেওয়া হবে তা নিয়ে কোনও বিস্তারিত তথ্য দিতে চায়নি বায়ুসেনা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here