samjhauta express

Highlights

  • বিজেপি যতদিন কেন্দ্রে ক্ষমতায় আছে, পাকিস্তানের সঙ্গে সম্পর্ক আর জোড়া লাগার সম্ভাবনা নেই
  • জম্মু-কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার হওয়ার সময় থেকেই দ্বন্দ্ব শুরু হয়েছিল, তা এখন চরমে
  • শেষবার গত বছরের ৮ অগস্ট শেষবার দুই দেশের মধ্যে এই সমঝোতা এক্সপ্রেস চলেছিল

মহানগর ওয়েবডেস্ক: বিজেপি যতদিন কেন্দ্রে ক্ষমতায় আছে, পাকিস্তানের সঙ্গে সম্পর্ক আর জোড়া লাগার সম্ভাবনা নেই। বুঝতে পেরে এবার ‘সমঝোতা’র চিহ্ন পাকিস্তানকে ফিরিয়ে দিতে বলল ভারত। জম্মু-কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার হওয়ার সময় থেকেই দ্বন্দ্ব শুরু হয়েছিল, তা এখন চরমে। তাই এবার ওয়াঘায় পড়ে থাকা সমঝোতা এক্সপ্রেসের রেকও পাকিস্তানকে ফিরিয়ে দেওয়ার আবেদন জানানো হয়েছে ভারতের তরফ থেকে। ইতিমধ্যেই ভারতীয় বিদেশমন্ত্রক পাকিস্তানের কাছে এই আবেদন জানিয়েছে।

সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর, শেষবার গত বছরের ৮ অগস্ট শেষবার দুই দেশের মধ্যে এই সমঝোতা এক্সপ্রেস চলেছিল। কিন্তু তারপর থেকে দুই দেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক তলানিতে ঠেকে যাওয়ার কারণে আর রেলের চাকা গড়ায়নি। সেই কারণে ভারতীয় বিদেশমন্ত্রক পাকিস্তানের সংশ্লিষ্ট বোর্ডকে জানিয়েছে যত সত্ত্বর সম্ভব যেন ভারতের বগিগুলি ফেরত পাঠানো হয়। ঘটনাচক্রে ভারত ও পাকিস্তান সমঝোতার চুক্তির কারণে ৬ মাস একে অন্যের রেক ব্যবহার করত। জানুয়ারি থেকে জুন মাস পর্যন্ত পাকিস্তানের রেক ব্যবহার হত। জুলাই থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত ব্যবহার করা হত ভারতীয় রেলের রেক।

যেই সময় পাকিস্তান এই ট্রেনের চলাচল বাতিল করে তখন ভারতীয় রেক ব্যবহার করা হচ্ছিল। ৮ অগস্ট এই এক্সপ্রেস বাতিল হওয়ার সময় আটকে পড়েছিলেন যাত্রীরা। পরদিন ফেরত পাঠানো হয়েছিল ইঞ্জিন সহ ভারতীয় রেলওয়ে কর্মী ও নিরাপত্তারক্ষীদের। ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে হওয়া সিমলা চুক্তির জন্যই দু’দেশের সম্পর্ক ও সমঝোতা রক্ষার্থে ১৯৭৬ সালের জুলাই মাস থেকে এই এক্সপ্রেস চালু হয়েছিল। দু’দেশের সম্পর্কের মধ্যে ফাটল দেখা দিলেই এই এক্সপ্রেস চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। কিন্তু এর আগে এত দীর্ঘ সময় যাবত এই এক্সপ্রেস কখনও বাতিল থেকেছে কিনা সন্দেহ। ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার পর থেকে টানা পাঁচ মাস ধরে এই এক্সপ্রেস চলাচল বন্ধ রয়েছে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here