kolkata news

মহানগর ডেস্ক: ওয়ার্ল্ড হেলথ সেন্টার অর্থাৎ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ছাড়পত্র পায়নি ভারত বায়টেকের থেকে তৈরি করোনা প্রতিষেধক কোভ্যাক্সিন। কাজেই বিপাকে পড়েছেন ভারতীয়রা। যে সব ভারতীয়রা বিদেশে চাকরি কিংবা পড়াশোনা করেন তাঁরা অনেকেই বিদেশে গিয়েছেন। কিংবা বিদেশে যাওয়ার জন্য ভিসার আবেদন করেছেন। তবে, এই ভ্যাকসিন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ছাড়পত্র না পাওয়ার কারণে ব্রিটেন, আমেরিকা, সৌদি আরবের মত দেশগুলো পুনরায় টিকার ব্যবস্থা করছে ওই সব ভারতীয় নাগরিকদের জন্য।

যেসব ভারতীয় নাগরিকরা সৌদি আরবে চলে গিয়েছেন তাঁদের জন্য ১৪ দিনের নিভৃতবাসের ব্যবস্থা করেছে সৌদি সরকার। ১৪ দিন নিভৃতবাস পূর্ণ হলেই তাঁদের বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা অনুমোদিত টিকা দেওয়া হচ্ছে। ভারতে এতদিন মূলত কোভ্যাক্সিন এবং কোভিশিল্ড দিয়ে টিকাকরণ সম্পন্ন হয়েছে। কোভিশিল্ড ইতিমধ্যেই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ছাড়পত্র পেয়েছে। তবে, কোভ্যাক্সিন না পাওয়ার কারণে যে সব ভারতীয়কে টিকা হিসেবে কোভ্যাক্সিন দেওয়া হয়েছিল তাঁরা সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন।

এই বিষয়ে কোভ্যাক্সিন প্রস্তুতকারী সংস্থা ভারত বায়োটেক জানিয়েছে, এই ভ্যাকসিন তৃতীয় দফা ট্রায়াল চলাকালীন জরুরি ভিত্তিতে ছাড়পত্র পেয়েছে। সেই কারণেই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদন পাওয়া যায়নি। মেলেনি বৈধ লাইসেন্সও। তবে, ইতিমধ্যেই তৃতীয় দফা ট্রায়াল শেষ হয়েছে। এবং জন্য গিয়েছে, এই ভ্যাকসিন সংক্রমণ রোধে ৭৮ শতাংশ কাজ করে। এই ফলাফল জুলাইয়ে হতে মিলবে। তারপরই প্রস্তুতকারক সংস্থা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদনের জন্য আবেদন করবে। অনুমোদন পাওয়া গেলে কোভ্যাক্সিন প্রতিষেধক নেওয়া ভারতীয়দের এই সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here