মহানগর ওয়েবডেস্ক: করোনাকে সঙ্গী করেই অর্থনৈতিক দুর্দশা কাটিয়ে উঠতে চাইছে সব দেশ। আর এই কারণে নতুন এক বিল আনল কুয়েত। নতুন বিলে বলা হয়েছে, কুয়েতের মোট জনসংখ্যার মাত্র ১৫ শতাংশ ভারতীয়ই সেদেশে থাকতে পারবে। আর এর পরেই কুয়েতে বসবাসকারী কয়েক লক্ষ ভারতীয়র ভবিষ্যৎ সংশয়ের মুখে।

কুয়েতের সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, এই বিলকে আইনে পরিণত করতে আগ্রহী সেদেশের আইনসভা। বিল আইনে পরিণত হলে, ১৫ শতাংশের বেশি ভারতীয় সেদেশে থাকতে পারবেন না। কুয়েতের মোট জনসংখ্যা ৪৩ লক্ষ। তারমধ্যে ৩০ লক্ষই বিদেশি নাগরিক। সেখানে ১৪.৫ লক্ষ ভারতীয় থাকেন। বিল পাস হয়ে গেলে প্রায় আট লক্ষ ভারতীয়কে কুয়েত ছাড়তে হবে।

এই বিলটি আনার পিছনে প্রধান কারণ হচ্ছে করোনা ও অর্থনৈতিক মন্দা। করোনা ও লকডাউনের জেরে সব দেশের মতোই কুয়েতও অর্থনৈতিক ভাবে প্রবল লোকসানের সম্মুখীন হয়েছে। এই অবস্থায় যাতে স্থানীয়রা বেশি চাকরি পায়, সেই কারণেই বিদেশিদের সংখ্যা নিয়ন্ত্রণ করতে চাইছে কুয়েত সরকার। কুয়েতের প্রধানমন্ত্রী শেখ সাবাহ আল খালিদ আল সাবাহ কয়েকদিন আগেই বলেছিলেন কুয়েতের মোট জনসংখ্যার ৭০ বিদেশি। এই সংখ্যাটাকে তিনি ৩০ শতাংশে নামিয়ে আনতে চান।

প্রসঙ্গত, কুয়েতে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৫০ হাজার ছুঁইছুঁই। গত ২৪ ঘন্টায় সেখানে ৬৩৮ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে ১৭৫ জন বিদেশি নাগরিক। এছাড়া করোনায় সেদেশে প্রাণ হারিয়েছেন ৩৬৮ জন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here