inflation bengali news

Highlights

  • জানুয়ারিতে  ফের বাড়ছে মুদ্রাস্ফীতি
  • জানুয়ারিতে আট শতাংশ মুদ্রাস্ফীতি
  • উদ্বিগ্ন আরবিআই

মহানগর ওয়েবডেস্ক: ২০২০ সালের জানুয়ারিতে খুচরো মুদ্রাস্ফীতি ৮ শতাংশ অতিক্রম করে যাবে। এমনই আশঙ্কার খবর শুনিয়েছে রিপোর্ট। এমন সংকটজনক পরিস্থিতি তৈরি হবে যে আর্থিক পরিষেবা নিয়ে বৈঠকে বসতে বাধ্য হবে আরবিআই। ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে খুচরো মুদ্রাস্ফীতি ৭ .৩৫ শতাংশ হয়েছিল। যা রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া(আরবিআই)র লাল সতর্কতা অতিক্রম করেছে।

জানুয়ারিতে আরও বাড়বে মুদ্রাস্ফীতি । এমনই রিপোর্ট প্রকাশ্যে এসেছে। ৮ শতাংশ হয়ে যাবে খুচরো মুদ্রাস্ফীতি। পরিস্থিতি এমন দিকে এগোবে যে মুদ্রানীতি নিয়ে বৈঠকে বসতে হবে আরবিআইকে। আগেই আরবিআইয়ের উর্ধ্বসীমা অতিক্রম করেছে মুদ্রাস্ফীতি। সামনেই আবার বাজেট অধিবেশন। নতুন করে মুদ্রানীতি নিয়ে ভাবতে হতে পারে আরবিআইকে।

ডিসেম্বরে মুদ্রাস্ফীতি আরও ৭.৩৫ শতাংশে পৌঁছে গিয়েছে। এর জন্য পেঁয়াজের দামকে দায়ী করচেন অর্থনীতিবিদদের অধিকাংশ৷ উল্লেখ্য ডিসেম্বরে পেঁয়াজের মুদ্রাস্ফীতি ৬০.৫ শতাংশ হয়েছিল৷ ২০২০ সালে মুদ্রাস্ফীতি বেশি থাকবে বলে জানানো হয়েছে। মনে করা হচ্ছে ৬ শতাংশে নীচে মুদ্রাস্ফীতি নামবে না। জুন-জুলাই মাস পর্যন্ত এই অবস্থাতেই থাকবে মুদ্রাস্ফীতি। তবে কেন্দ্রীয় খাদ্যমন্ত্রী রাম বিলাস পাসওয়ানের আশ্বাস, এই মাস থেকে ২২ টাকা কেজি হবে পেঁয়াজ৷ খবরে প্রকাশ, দেশের বহুজায়গায় পেঁয়াজ নষ্ট হচ্ছে৷ তাই তরিঘড়ি দাম কমাতে উদ্যোগ নিয়েছে কেন্দ্র৷ উল্লেখ্য গত কয়েকমাস ধরেই পেঁয়াজের দাম লাগাম ছাড়া হয়েছে গোটা দেশে। রাজ্যগুলি কেন্দ্রের কাছ থেকে পেঁয়াজ কিনছে না বলেই দাম নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছেন রামবিলাস পাসোয়ান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here