ইসলামাবাদ থেকে ভারতে ফেরত পাঠানো হল ভারতীয় হাইকমিশনারকে

0
74
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: সমঝোতা এক্সপ্রেস, থর এক্সপ্রেসের পর এবার পালা ভারতীয় হাই কমিশনারের। কাশ্মীরে ৩৭০ রদ করার পর থেকেই তা মেনে নিতে কষ্ট হচ্ছে পাকিস্তানের। ইমারানের সরকারের তরফে স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হয়েছে ভারত সরকারের এই পদক্ষেপকে তারা সমর্থন করে না। সেই জবাব দিতেই যতদূর যেতে হয় যাবে পাক সরকার। সংসদে বিল পাশ হওয়ার পরই পাকিস্তানের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয় ইসালামাবাদ থেকে ফিরে যেতে বলা হয়েছে ভারতীয় হাই কমিশনারকে। ভারতের বিদেশ মন্ত্রকের তরফে ইমরানের সরকারেকে বলা হয়, এমন সিন্ধান্ত নেওয়ার আগে পুনরায় ভেবে দেখতে। এতে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক নষ্ট হতে পারে।

তবে কোনও কিছুর বালাই না করেই একের পর হঠকারী সিদ্ধান্ত নিয়ে চলেছে পাক সরকার। এবার পাক সরকারের নির্দেশ মতোই ইসালামাবাদ থেকে দেশে ফেরত পাঠানো হল ভারতীয় দূত অজয় বিসারিয়াকে। একই সঙ্গে দেশে ফিরছেন আরও কয়েকজন আধিকারিক। যদিও ভারত সরকারে তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, ছুটির মরসুমে দেশে ফিরছেন তারা। খুব জলদি তাদের ছুটি শেষ হলেই ইসলামাবাদে নিজেদের কাজে ফিরে যাবেন তাঁরা। প্রসঙ্গত, পাকিস্তানের নতুন ভারতীয় দূত এখনও এদেশে এসে উপস্থিত হননি। পাক দূত মঈন-উল-হকের চলতি সপ্তাহে আসার কথা থাকলেও ইসলামাবাদের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে এখনি তিনি ভারতে যাচ্ছেন না।

উল্লেখ্য, কাশ্মীর প্রসঙ্গে প্রথম থেকেই সুর চড়িয়েছিলেন পাক প্রধানমন্ত্রী। এই ইস্যুতে গোটা বিশ্বকে পাশে পেতে ছুটে গিয়েছিলেন আন্তর্জাতিক মঞ্চে। কিন্তু সেখানেও জোটেনি সমর্থন। বিপদের দিনে পুরনো বন্ধুকে পাশে পেতে বেজিং উড়ে গিয়েছিলেন পাক বিদেশমন্ত্রী। কিন্তু এক্ষেত্রে ভারতের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে চিন। উল্টো ভারতের পাল্লা ভারী করেছে রাশিয়ার সমর্থন। এরই মধ্যে দিশেহারা ইমারান আবার সুর চড়িয়ে টুইট করেন নাৎসির আদর্শে অনুপ্রাণিত আর.এস.এস। তাঁদের কারণেই আজ এই অবস্থা কাশ্মীরের। আশঙ্কা প্রকাশ করে ইমরান বলেন, এর পর গণহত্যার মতো ঘটনাও ঘটবে কাশ্মীরে। যদিও এই বিষয়ে কোন জবাব দেওয়ার প্রয়োজন মনে করেনি দিল্লি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here