নিরাপত্তা বেষ্টনী টপকে সোজা প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর বাড়িতে ঢুকে পড়ল গাড়ি, তারপর!

0
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: মাত্র কয়েক দিন আগেরই তো ঘটনা। গান্ধী পরিবারের স্পেশাল প্রোটেকশন গ্রুপের নিরাপত্তা তুলে নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। এরই মধ্যে ঘটল বিপত্তি। কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বঢড়ার বাড়িতে হঠাৎ ঢুকে পড়ল একটি গাড়ি। একে তো মধ্য দিল্লির হাই সিকিউরিটি জোন লোধি এস্টেট, তার ওপর প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর মত হাই প্রোফাইল রাজনীতিবিদের বাড়িতে এভাবে নিরাপত্তা বেষ্টনি তোয়াক্কা না করে বাড়ির ভেতরে রমারম ঢুকে যাওয়া নিয়ে অনেক প্রশ্নই উঠতে পারে। হঠাৎই বাড়ির ভেতরে গাড়ি নিয়ে ঢুকে যায় পাঁচ জন। ওই পাঁচ জনের মধ্যে একটি মেয়েও ছিল বলে প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর অফিস সূত্রে জানা গেছে। একই পরিবারের সদস্য তারা। গাড়ি থেকে নেমে সোজা প্রিয়াঙ্কার বাগানে চলে যায় প্রত্যেকেই। খোঁজ নিয়ে জানা যায় গাড়ির মধ্যে থাকা প্রত্যেকেই উত্তর প্রদেশ থেকে এসেছে শুধুমাত্র প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর সঙ্গে ছবি তুলবে বলে। আর এতেই বাড়ছে জল্পনা।

প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর সঙ্গে দেখা করার জন্য কোনও অ্যাপয়েন্টমেন্ট নেওয়া হয়নি বলে সূত্রের খবর। এমনকি সিআরপিএফ জওয়ানদের কাছেও এবিষয়ে কোনও তথ্য ছিল না। পরিস্থিতি এতটাই দ্রুত হয় যে কিছুই বুঝে ওঠা যায়নি। সিআরপিএফ জওয়ানদের এবিষয়ে প্রিয়াঙ্কা জানতে চাইলে পুরো বিষয়টি সামনে আসে। দ্রুত পুরো বাড়িতেই সতর্কতা জারি করা হয়। স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠছে কীভাবে নিরাপত্তা বেড়াজাল টপকে বাড়িতে ঢুকে পড়ল একটি পরিবার। অভিযোগ এত খারাপ নিরাপত্তা ব্যবস্থা কেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর মত হেভিওয়েটের বাড়ির সামনে। নিরাপত্তারক্ষীরা শুধু গাড়িটিকে বাড়ির ভেতর ঢুকতে দিয়েছে তাই নয়, গাড়িতে য়ারা ছিল তাদের কারও পরিচয়ও জানতে চায়নি বলে অভিযোগ। নিরাপত্তা গাফিলতির কথা স্বীকার করেও প্রিয়াঙ্কার অফিসের তরফে জানানো হয়েছে যে, কোনও অপ্রিতীকর পরিস্থিতি তৈরি হয়নি। ওই পরিবারের সঙ্গে দেখা করেছেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। তাদের সঙ্গে কথাও বলেছেন তিনি।

প্রসঙ্গত, কয়েকদিন আগেই কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী ও রাহুল গান্ধীর এসপিডি নিরাপত্তা তুলে নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। বর্তমানে জেড প্লাস ক্যাটাগরির নিরাপত্তা পান সোনিয়া ও রাহুল। এই নিয়ে সংসদেও জোর সওয়াল জবাবও হয়। যে পরিবারের দুই সদস্য(ইন্দিরা গান্ধী, রাজীব গান্ধী) আততীয়দের হাতে নিহত হয়েছেন সেই পরিবারের এসপিজি নিরাপত্তা তুলে নেওয়ার যৌক্তিকতা নিয়ে প্রশ্ন ছুড়ে দেয় কংগ্রেস শিবির। যদিও সেসব যুক্তি কেন্দ্রের কাছে গ্রাহ্য হয়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here