ডেস্ক: চলতি বছরে আইপিএল ভালোই কাটছে। কোন বিতর্ক দানা বাঁধেনি এখনও পর্যন্ত। কিন্তু একটি ঘটনা অশান্তির আগুন কিছুটা হলেও বাড়িয়ে দিয়েছে। কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের কর্ণধার ও অভিনেত্রী প্রীতি জিন্টা ও কোচ বীরেন্দ্র শেওয়াগ নিজেদের মধ্যে ঝামেলায় জড়িয়ে পড়েছেন। সূত্রের খবর, গত ম্যাচে রাজস্থান রয়্যালস-এর কাছে হারের জন্য বেজায় চটেছেন প্রীতি। তাঁর মতে ওই ম্যাচটা অনায়াসে জেতা যেত কিন্তু শেওয়াগের গাফিলতির জন্য এই ঘটনা ঘটেছে। সূত্রের খবর, এই কারণে হয়ত আগামী সিজনে আর কোচ হিসাবে দায়িত্ব নাও দেওয়া হতে পারে শেওয়াগকে।

শোনা যাচ্ছে শেওয়াগের কোচিং স্কিল নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন প্রীতি জিন্টা। শেওয়াগ তাঁর বন্ধুমহলে অসন্তোষ প্রকাশ করে জানিয়েছেন যে, প্রীতি জিন্টা তাঁর কাজের মধ্যে অত্যাধিক নাক গলাতে শুরু করেছেন। সেই সূত্রে শেওয়াগ নিজেও প্রীতির অভিনয়-এর পারদর্শিতার বিষয় নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। এই কারণে তীব্র বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েছেন দুজনে। কিন্তু ফ্র্যাঞ্চাইজি তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে এমন কোন ঘটনা ঘটেনি। এই দলের অন্যতম কর্ণধার মোহিত বর্মণ জানিয়েছেন এমন কিছুই হয়নি। এটা শুধুমাত্র ভুল কথা রটানো হচ্ছে। প্রীতির এহেন আচরন কিন্তু নতুন নয়।

এর আগেও কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের প্রাক্তন অন্যতম কর্ণধার নেস ওয়াদিয়ার বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগে থানায় এফআইআর দায়ের করেছিলেন প্রীতি জিন্টা। সঞ্জয় বাঙ্গার কিংস ইলেভেনের কোচ থাকাকালিন তাঁর চাকরি খেয়ে নেওয়ার হুমকি দিয়েছিলেন প্রীতি জিন্টা। বলা যেতে পারে কিংস ইলেভেনের কর্ণধার রুপে প্রীতি জিন্টার এমন দাপট আলাদা নজির কেড়েছে আইপিএলে। তবে এই ঘটনায় শেওয়াগ বা প্রীতির তরফ থেকে কোন সদুত্তর পাওয়া যায়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here