ডেস্ক: লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির যে এবার পাখির চোখ এই বাংলা তা নতুন করে বলার অপেক্ষা রাখে না। তবে রাজ্যে এখনও সমস্ত আসনে প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেনি বিজেপি। যে কয়টি আসনে প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হয়নি তাঁর মধ্যে কোনও একটিতে প্রার্থী হওয়ার প্রস্তাব পৌঁছল এবার মোদীর কাছে। নরেন্দ্র মোদীকে দেওয়া রাজ্য বিজেপির এই প্রস্তাবের জেরে বাড়তে শুরু করল জল্পনা, তবে কি বারাণসীর পাশাপাশি রাজ্য থেকে এবার প্রার্থী হচ্ছেন খোদ মোদী?

শনিবার দক্ষিণ দিনাজপুরের বুনিয়াদপুরে জনসভায় এসেছিলেন নরেন্দ্র মোদী। এই জনসভার পরই প্রকাশ্যে এল এই খবর। যার জেরে এবার বাড়তি অক্সিজেন পাচ্ছে বিজেপির নেতা কর্মীরা। যদিও মোদী বাংলা থেকে প্রার্থী হবেন কিনা তা নিশ্চিত ভাবে জানাতে পারেননি কোনও বিজেপি নেতাই। গোটাটাই নির্ভর করছে মোদীর ইচ্ছার উপর। মোদীর সভার শেষে এদিন সাংবাদিকদের সামনে বিজেপি নেতা মুকুল রায় বলেন, ‘বাংলায় গণতন্ত্রকে বাঁচানোর জন্য, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অপশাসনকে দূর করবার জন্য বাংলা থেকে প্রার্থী হওয়ার আবেদন জানিয়েছি আমি। উনি আমার বন্তব্য মন দিয়ে শুনেছেন হেসেছেন কিন্তু না বলেননি। ফলে আমরা আশা করতেই পারি উনি বাংলা থেকে প্রার্থী হবেন।’

উল্লেখ্য, এই লোকসভায় বাংলায় ৪২ শে ৪২ আসন পাবে বলে দাবি করেছে তৃণমূল। তবে বাংলার অর্ধেকেরও বেশি আসনে জয় ছিনিয়ে নেবে বলে জানিয়ে দিয়েছেন বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব। ফলে বেড়ে প্রচারের বহরও। সুযোগ পেলেই বাংলায় হানা দিচ্ছেন কেন্দ্রীয় বিজেপির শীর্ষ নেতা নেত্রীরা। এহেন সময়ে তৃণমূলকে টেক্কা দিতে বাংলায় মোদীকেই মুখ করতে আগ্রহী হয়ে উঠল রাজ্য বিজেপি। গেরুয়া শিবিরের নেতাদের দাবি, মোদী যদি প্রার্থী হন সেক্ষেত্রে বাংলায় লক্ষ্য স্থির রেখে ভোট বৈতরণী পার হতে খুব বিশেষ অসুবিধা হবে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here