news bengali

মহানগর ওয়েবডেস্ক: বিপদের সময় একাধিক দেশে অত্যাবশ্যক ওষুধ পাঠিয়েছে ভারত। সেই জন্য আগেই আমেরিকা ও ব্রাজিলের তরফ থেকে ধন্যবাদ জানানো হয়েছিল। এবার একই কারণে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে ধন্যবাদ জানালেন ইসরায়েলের প্রেসিডেন্ট বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু। ম্যালেরিয়ার ওষুধ হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন সহ মোট পাঁচ টন ওষুধ পাঠানো হয়েছে ইসরায়েলে।

এই প্রসঙ্গে নেতানিয়াহু একটি ট্যুইট করে লেখেন, ‘ইসরায়েলে ক্লোরোকুইন পাঠানোর জন্য আমার বন্ধু নরেন্দ্র মোদীকে অনেক ধন্যবাদ। ইসরায়েলের সমস্ত নাগরিক আপনাকে ধন্যবাদ জানায়।’

গত মাসে ওষুধ রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা জারি হওয়ার পরই মোদীকে ফোন করেছিলেন নেতানিয়াহু। কিছুদিন আগেই সেই কথা তিনি জানান। ‘আমি আমার বন্ধু ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে কথা বলেছি। অবশ্যই কিছু ক্ষেত্রে আমরা অন্যদেশের প্রতি নির্ভরশীল। সেই জন্য আমরা সব দেশের সঙ্গেই যোগাযোগ রাখছি।’

উল্লেখ্য, কদিন আগেই একই কারণে মোদীকে ধন্যবাদ জানান ব্রাজিল প্রেসিডেন্ট বলসোনারো ও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বলসোনারো বলেন, ‘একটি সুখবর রয়েছে। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে আমার কথা হয়েছিল। আগামী শনিবারের মধ্যে ভারত থেকে হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন তৈরির কাঁচামাল আমরা পেয়ে যাব। ফলে করোনা আক্রান্ত রোগীদের পাশাপাশি ম্যালেরিয়া, আর্থ্রাইটিস, লুপাসের মতো রোগে আক্রান্ত মানুষদের চিকিৎসা করা সম্ভব হবে। এই জন্য আমি নরেন্দ্র মোদী ও ভারতের সকল নাগরিককে ধন্যবাদ জানাই।’

টুইট করে মার্কিন প্রেসিডেন্ট লেখেন, ‘অসাধারণ কিছু সময় আপন বন্ধুদের সাহায্য প্রয়োজন। ভারত এবং ভারতের সমস্ত মানুষদের ধন্যবাদ এই ওষুধ নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য। এই উপকার কখনও ভুলব না। আপনার কঠিন নেতৃত্তের জন্য আপনাকে ধন্যবাদ নরেন্দ্র মোদী। শুধু ভারতকে সাহায্যের জন্য নয় মানবতাকে সাহায্যের জন্য।’

এখনও পর্যন্ত প্রাপ্ত ওষুধের মধ্যে করোনাভাইরাসের ক্ষেত্রে কিছুটা কার্যকরী ওষুধ হিসেবে প্রমাণিত হয়েছে হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন যা ম্যালারিয়ার ওষুধ হিসেবেই প্রচলিত। ভারতে করোনাভাইরাস প্রবল আকার ধারণ করতে চলেছে সেটা আন্দাজ করে গত মাসেই সরকার হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন রফতানিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করে। গত সপ্তাহে মোদীর সঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্টের ফোনে আলোচনা হয় এবং স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী টুইট করে জানান, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সঙ্গে তাঁর অত্যন্ত ফলপ্রসু আলোচনা হয়েছে এবং দুই দেশ যৌথ ভাবে করোনাভাইরাসকে পরাজিত করতে বদ্ধপরিকর। মোদীর এই টুইটের কিছুক্ষণের মধ্যেই ডোনাল্ড ট্রাম্প সরাসরি হুমকি দিয়ে বসেন ভারতকে। ভারত যদি হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন–এর রফতানির ওপর নিষেধাজ্ঞা না তুলে নেয় তাহলে তার ফল ভারতকে ভুগতে হবে। ট্রাম্পের এমন সরাসরি ‘শাসানির’ পর শনিবারই ভারত গত এক মাস ধরে হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন–এর ওপর জারি রাখা নিষেধাজ্ঞা আংশিক তুলে নেয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here