সমকামিতার জের! সেক্স করে টাকা মেটাননি ইসরো বিজ্ঞানী, সঙ্গীই করল খুন

0
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: পরিবারের সন্দেহই হল সত্যি। হায়দরাবাদের ইসরো বিজ্ঞানীকে খুনই হতে হয়েছে। তবে যে কারণে তিনি খুন হলেন তা একেবারে বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে দেশে! সমকামিতার জেরে খুন হতে হল ইসরো বিজ্ঞানী এস সুরেশ কুমারকে। ঘটনার চার দিনের মধ্যেই খুনের রহস্যভেদ করে ফেলল পুলিশ। গ্রেফতার করা হয়েছে স্থানীয় ডায়াগনস্টিক সেন্টারের এক টেকনিশিয়ানকে। তাকে জেরা করে পুলিশে জানতে পেরেছে বিস্ফোরক তথ্য।

পুলিশ জানিয়েছে, ল্যাবের ওই টেকনিশিয়ানের সঙ্গে সমকামে আসক্ত হয়ে পড়েছিলেন ইসরোর বিজ্ঞানী এস সুরেশ কুমার। যৌন সম্পর্কের পর টাকা না মেটানোর কারণেই ওই টেকনিশয়ান নৃশংস ভাবে খুন করে তাকে। পুলিশের এক উচ্চপদস্থ আধিকারিকের কথায়, ওই টেকনিশিয়ানের সঙ্গে বহুদিন ধরেই সেক্সুয়ালি অ্যাকিটিভ ছিলেন ওই বিজ্ঞানী। কোনও সম্পর্ক নয়, শুধু টাকার বিনিময় যৌন সম্পর্ক ছিল। কিন্তু পরবর্তী সময়ে প্রতিশ্রুতি মতো টাকা দেননি ওই বিজ্ঞানী! এই কারণেই ওই টেকনিশিয়ান খুন করে তাকে। ধৃত টেকনিশিয়ানের নাম শ্রীনিবাস, আর তিনিই যে বিজ্ঞানীকে খুন করেছেন তার যথেষ্ট প্রমাণ পেয়েছে পুলিশ। এমনকি, ধৃত নিজেই সে কথা স্বীকার করেছে।

হায়দরাবাদের আমিরপেট এলাকার ধরম করম রোডের একটি আবাসন থেকে গত মঙ্গলবার উদ্ধার হয় ইসরো বিজ্ঞানী এস সুরেশ কুমারের রক্তাক্ত দেহ। মঙ্গলবার তাঁর অফিস যাওয়ার কথা থাকলেও তিনি যাননি। সহকর্মীরা বারবার তাঁকে ফোন করে সুইচড অফ পেয়েছিল। বেশ কিছু সময় এইভাবে কেটে যাওয়ায় সন্দেহ হয় সকলের। ওই আবাসনে থাকা সুরেশের এক আত্মীয়র সঙ্গে সহকর্মীরা যোগাযোগ করে তাঁকে ওর ফ্ল্যাটে পাঠান। ওই আত্মীয় গিয়ে দেখেন বাইরে থেকে তালা বন্ধ রয়েছে বিজ্ঞানীর ঘর। এরপরই চেন্নাইয়ে সুরেশ কুমারের স্ত্রী ইন্দিরাকে ফোন করেন তিনি। ইন্দিরাদেবী আসার পর পুলিশ গিয়ে ওই ফ্ল্যাটের তালা ভেঙে ভিতরে প্রবেশ করে। আর তখনই দেখা যায় রক্তাক্ত অবস্থায় মেঝেতে পড়ে আছে সুরেশ কুমারের মৃতদেহ। সুরেশের মাথার পিছন দিকে তিনটি জায়গায় গভীর ক্ষত ছিল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here