kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, হাওড়া: ঘূর্ণিঝড় আমফানের তাণ্ডবে বহু গাছ ভেঙে ক্ষতির মুখে পড়া বোটানিক্যাল গার্ডেন ঘুরে দেখলেন দিলীপ ঘোষ। ঘূর্ণিঝড় আমফানের জেরে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয় হাওড়ার শিবপুর বোটানিক্যাল গার্ডেনে। অনেক দুষ্প্রাপ্য বিরল প্রজাতির গাছ ঝড়ে ভেঙে পড়ে। প্রাচীন বটবৃক্ষেরও অনেক ক্ষতি হয়। আজ রবিবার দুপুরে শিবপুর বোটানিক্যাল গার্ডেন পরিদর্শনে আসেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি ঠা সাংসদ দিলীপ ঘোষ।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে এখানে। এখানে পনেরো হাজারেরও বেশি গাছ আছে। কিছু গাছ আছে শতাধিক বছরের। ঝাউ, মেহগনি গাছ সাধারণত খুব শক্ত হয়। সেই গাছগুলোর মূল থেকে উপড়ে গেছে, না হয় মাঝখান থেকে ভেঙে গেছে। আমি ৫ তারিখ পরিবেশ দিবসে গাছ লাগাব। মানুষকে গাছ লাগানোর অনুরোধ জানাব। এটা প্রকৃতির ভয়ঙ্কর রূপ।

তিনি আরও বলেন, এই ক্ষতির কোনও মাপকাঠি নেই। এই ক্ষতি সকলে মিলে পূরণ হবে। কেন্দ্রীয় সরকারের সাহায্য ছাড়া এর ধাক্কা থেকে উঠে আসা সম্ভব নয়। এটা বিপর্যয় সেটা নিশ্চিত। সেই বিপর্যয়ের সীমা পরিসীমা দেখে অবশ্যই কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে আবেদন করা উচিত। কেন্দ্রের সহযোগিতা ছাড়া এর পুনর্নির্মাণ করা সম্ভব নয়। ঠিকঠাক তথ্য পাওয়া গেলে পুনর্নির্মাণের পক্ষেও সুবিধা হবে। ঝড়ের দিনই মনগড়া যা ইচ্ছে বলে দিলাম। এর কোনও ভিত্তি নেই। কিছু বলে দেওয়ার ওনার একটা অভ্যাস আছে। মুখ্যমন্ত্রী বলে দিলেন জাতীয় বিপর্যয়। জাতীয় বিপর্যয় বলে কিছু হয় না। এর কোনও মাপকাঠি নেই। এর কোনও টার্ম হয় না। বিপর্যয় আসলে বিপর্যয়ই। ক্ষয়ক্ষতির পরিমাপ করে সরকারের কাছে দেওয়া উচিত। সহযোগিতার পক্ষে যাতে সুবিধা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here