kolkata news

Highlights

  • জেএনইউ পড়ুয়াদের উপর রবিবার রাতে মুখোশধারীদের বর্বরোচিত হামলা
  • পড়ুয়াদের জন্যই আজ এমন পরিস্থিতি জহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের
  • জেএনইউর উপাচার্যকে সরানো হোক দাবি অধ্যাপক সংগঠনের

মহানগর ওয়েবডেস্ক: জেএনইউ পড়ুয়াদের উপর রবিবার রাতে মুখোশধারীদের বর্বরোচিত হামলার পর ইতিমধ্যেই তেতে উঠেছে দেশের যুবসমাজ। এহেন পরিস্থিতির মাঝেই জহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের সঙ্গে সরাসরি সংঘাতের রাস্তায় হাঁটলেন জেএনইউর উপাচার্য এম জগদেশ কুমার। এই হামলাকে কার্যত সমর্থন জুগিয়ে তাঁর দাবি, ‘পড়ুয়াদের জন্যই আজ এমন পরিস্থিতি জহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের।’ তাঁর এহেন মন্তব্যের পর নতুন করে শুরু হয়েছে বিতর্ক। বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপকদের তরফ থেকেই উপাচার্যকে সরানোর দাবি উঠেছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ফি বৃদ্ধি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই প্রতিবাদ কর্মসূচী চালিয়ে যাচ্ছেন জেএনইউ পড়ুয়াদের একাংশ। এমনকি তাদের দাবি না মানার কারণে পরীক্ষার জন্য নথিভুক্তিকরণও বয়কট করেছেন তারা। এই আন্দোলন চলাকালীনই রবিবার সন্ধ্যায় জেএনইউর অন্দরে শুরু হয় মুখোশধারীদের তাণ্ডব। লোহার রড লাঠি দিয়ে হোস্টেলের মধ্যে ঢুকে ব্যাপক মারধোর করা হয়। তাদের হাতে পড়ুয়াদের পাশাপাশি জখম হন অধ্যাপকরাও। ঘটনার সময় বাইরে পুলিশ থাকলেও ঠুঁটো জগন্নাথ হয়ে বসে থাকতে দেখা যায় তাদের। এখনও পর্যন্ত এই কাণ্ডের জেরে গ্রেফতার করা হয়নি কাউকেই। এরই মাঝে সোমবার সকালে এই ঘটনার প্রেক্ষিতে টুইটারে মুখ খোলেন জেএনইউর উপাচার্য এম জগদেশ কুমার। এই ঘটনার জন্য পড়ুয়াদের উপরই দোষ চাপিয়ে তিনি লেখেন, ‘আন্দোলনকারী পড়ুয়াদের কয়েকজন হিংসার রাস্তা বেছে নেওয়াতেই এই ঘটনা ঘটেছে জেএনইউতে। যারা আন্দোলনে অংশ নেননি তাদের পড়াশুনাতেও ব্যাঘাত করা হয়েছে। হাজার হাজার পড়ুয়াকে নাম নথিভুক্তিকরণে বাধা দেওয়া হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজকর্ম অচল করে দেওয়াই ওদের উদ্দেশ্য। এটা এক ধরনের গুণ্ডামি। কাউকে রেহাত করা হবে না। কড়া পদক্ষেপ নেব।’ তবে এতকিছু বললেও, পড়ুয়াদের উপর হামলার পর কি পদক্ষেপ করা হচ্ছে, তা নিয়ে অবশ্য মুখ খুলতে দেখা যায়নি উপাচার্যকে।


এদিকে এই ঘটনার পর সরাসরি এবিভিপির পাশাপাশি উপাচার্যের বিরুদ্ধে হামলাকারিদের মদত দেওয়ার অভিযোগ তুলেছে জেএনইউ ছাত্র সংসদ। তাদের দাবি, গতকালের ঘটনার পর হামলার অভিমুখ ঘুরিয়ে দেওয়ার জন্য এমন মন্তব্য করছেন উনি। রাতে দীর্ঘক্ষণ উনি বিজেপির আইটি সেলের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। আর সেই পরামর্শের ফলেই এই সব বলছেন উনি।’ পাশাপাশি, জেএনইউর উপাচার্যকে সরানোর দাবি জানিয়ে ইতিমধ্যেই রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দকে চিঠি লিখেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সংগঠন। চিঠিতে গতকালের ঘটনার জন্য সরাসরি দায়ী করা হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে। বলা হয়েছে, ‘ গতকাল রাতে লোহার রড, লাঠি, ইট, পাথর সহ একটি দলকে বিশ্ববিদ্যালয় ছেড়ে দেওয়া হয়। তারাই হামলা চালিয়েছিল হস্টেলে। যাদের হামলায় পড়ুয়ারা ও অধ্যাপকরা আহত হন। এই ঘটনার নিরপেক্ষ তদন্তের দাবি জানাচ্ছি আমরা। কিন্তু এম জগদেশ কুমার থাকাকালীন সেটা সম্ভব নয়। তাই ওনাকে সরানো হোক।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here