kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: বাংলা জয়ের উদ্দেশে নতুন রণনীতি নিয়েছিল ভারতীয় জনতা পার্টির। বাঙালি আবেগকে ‘দখল’ করতে বাংলায় ‘রাজনৈতিক সন্ত্রাসে’ খুন হওয়া বিজেপি কর্মীদের উদ্দেশে এ বছরের মহালয়ায় তর্পণ করবেন বিজেপি কার্যকরী সভাপতি জেপি নাড্ডা, খবর ছিল এমনই। সেই উদ্দেশেই ঝটিকা সফরে কলকাতায় এলেন তিনি। আগামিকাল বাগবাজারের ঘাটে কথামতোই দলীয় শহিদ-কর্মীদের স্মৃতির উদ্দেশে তর্পণ অনুষ্ঠানে থাকবেন তিনি।

কিছুদিন আগেই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠক করতে দিল্লি গিয়েছিলেন দিলীপ ঘোষ, মুকুল রায়রা। সেখানেই নাড্ডার তর্পণ কর্মসূচির বিষয়টিতে সিলমোহর দিয়েছেন অমিত। বঙ্গ বিজেপি নেতারা অবশ্য প্রাথমিকভাবে চাইছিলেন যেন অমিত শাহই এই তর্পণ করেন। কিন্তু সেই সময় অন্য কাজ থাকায় দলে নিজের ডেপুটিকে প্রথমবার কলকাতায় পাঠাচ্ছেন শাহ। ‘বসের’ কথা মেনেই ঠিক মহালয়ের আগের দিন কলকাতায় পা রাখলেন জে পি নাড্ডা। আজ বেলা দু’টো নাগাদ কলকাতা বিমানবন্দরে নামেন তিনি। পরবর্তী সময়ে সোজা চলে যান সল্টলেকের পূর্বাঞ্চলীয় সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে।

তবে এই কর্মসূচি কেবল কলকাতা শহরে আটকে থাকবে না বলে জানা গিয়েছে। বিভিন্ন জেলায় যেখানে যেখানে বিজেপি কর্মীরা খুন হয়েছেন সেখানেই গেরুয়া শিবির বরিষ্ঠ নেতাদের দ্বারা তর্পণের বন্দোবস্ত করা হয়েছে। জানা গিয়েছে, গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে ও পরবর্তী সময়ে দলের যাঁরা শহিদ হয়েছেন, তাঁদের পরিবারের সদস্যরাও থাকবেন জে পি নাড্ডার এই তর্পণে। পুজোর সময় বাঙালি জাতির বছরের শ্রেষ্ঠ সময় বললে হয় তো ভুল বলা হয় না। ওই কটা দিন সবরকম ঝঞ্ঝাট দূরে সরিয়ে আনন্দে দিন কাটাতে ভালবাসে বাঙালি। অতীতে দুর্গাপুজো নিয়ে রাজনীতি করার সেরম উদাহরণ চোখে পড়েনি ঠিকই। তবে নবান্ন দখলের তাগিদে ও বিজেপি-র বদান্যতায় এ বছর থেকেই তা শুরু হয়ে গেল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here