ডেস্ক: যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রবেশিকা বিভ্রাটে ঘেরাও উপাচার্য। ছাত্র ছাত্রীদের অভিযোগ স্নাতক স্তরে প্রবেশিকা পরীক্ষার দিনক্ষণ ঘোষণার পরও বাতিল করে দেওয়া হয়েছে বিশ্ববিদায়ল্যের তরফে। যার জেরেই ছাত্রছাত্রীরা এই বিক্ষোভ শুরু করেছে। কলা বিভাগের স্নাতকস্তরের পরীক্ষা হওয়ার কথা হয়েছিল প্রথমে ৩ থেকে ৬ জুলাইয়ের মধ্যে। এরপর সোমবার যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে জানানো হয় নির্ধারিত দিনে হচ্ছে না প্রবেশিকা। আর তারপর থেকেই শুরু হয় বিক্ষোভ। কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয়েছে, আরও কিছু ছাত্রছাত্রী যাতে আবেদন করার সুযোগ পায় তাই পরীক্ষার সময়সূচী আপাতত স্থগিত রাখা হয়েছে। আবেদন কারার সময়সীমা বাড়িয়ে ২ জুলাই পর্যন্ত ঠিক কার হয়েছে। যদিও পরবর্তী প্রবেশিকার দিনক্ষণ এখনও কিছু চূড়ান্ত করা হয়নি।

ভর্তির জন্য প্রবেশিকা পরীক্ষা নেওয়াটা আদৌ যুক্তিযুক্ত কিনা তা পর্যালোচনা করা হয় বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মীসমিতির বৈঠকে। অনুমোদন ছাড়া কেন নেওয়া হচ্ছে এই প্রবেশিকা পরীক্ষা সেই প্রশ্নও উঠেছে বৈঠকে। জুটার সম্পাদক নীলানঞ্জনা গুপ্ত বলেছেন, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ছাত্রছাত্রীদের ভবিষ্যৎ নিয়ে ছেলেখেলা করছে। কর্তৃপক্ষের এইরূপ আচরণের পিছনে সরকারের হাত আছে বলে অভিযোগ তুলেছে বিক্ষোভকারীরা। শিক্ষামন্ত্রী আন্দোলনকারীদের সমস্ত অভিযোগ নস্যাৎ করে দিয়ে বলেছেন, প্রবেশিকা পরীক্ষার বিষয়টা একান্তই বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব ব্যাপার। তবে ছাত্রছাত্রীদের মেধার সাথে কোন রকম সমঝোতা করা হবে না বলে জানিয়ে দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here