kolkata news

নিজস্ব প্রতিবেদক, যাদবপুর: লালের সঙ্গে চলল নির্দলের টক্কর। যেখানে ব্যাকফুটে এবিভিপি, অন্যদিকে খাতা খুলতেই পারল না টিএমসিপি। ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে বিপুল ভোটে জয়ী নির্দল ডিএসএফ। পাঁচটির মধ্যে পাঁচটি আসনেই জিতেছে ডেমোক্রাটিক স্টুডেন্ট ফেডারেশন। ওই বিভাগে প্রথমবার লড়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে এবিভিপি, তৃতীয় স্থানে এসএফআই। এই নিয়ে ডিএসএফ ৪৪ তম বার সংসদ গড়ার পথে।

বৃহস্পতিবার প্রায় তিন বছর পর ভোট হয় যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়। জাতীয় নাগরিকপঞ্জি ও নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলকে সামনে রেখে প্রেসিডেন্সির পর ভোট হল যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে। সায়েন্স, আর্টস ও ইঞ্জিনিয়ারিং- তিনটি শাখায় গতকাল হয় নির্বাচন। তবে বিক্ষিপ্ত কিছু অভিযোগ উঠলেও বড় কোনও অশান্তি হয়নি। সাধারণ নির্বাচনের মতো পুলিশ দিয়ে নয়, বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তারক্ষীদের দিয়েই এদিন ভোটগ্রহণ হয়। পুলিশ ছিল ক্যাম্পাসের বাইরে।

কলা ও বিজ্ঞান বিভাগের ভোট পড়েছে ৮০% সেখানে আগের থেকেই নিজেদের জয় নিশ্চিত নিয়ে আশাবাদী ছিল বাম ছাত্র সংগঠন এসএফআই। কিন্তু বিজ্ঞান বিভাগে জিতেছে ডব্লিউটিআই। অন্যদিকে ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের তুলনায় ভোট পড়েছিল অনেকখানিই কম যদিও এই বিষয়ে আশার আলো দেখেছে এবিভিপি। তবে আশার আলো নিভিয়ে দিয়ে ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে জিতেছে ডিএসএফ। অন্যদিকে, কলা বিভাগে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে এসএফআই ও ডিএসএফ। কলা বিভাগে খাতা খুলতেই পারেনি এবিভিপি। কোনও বিভাগেই খাতা খুলতে পারেনি টিএমসিপি।

আশঙ্কা থাকলেও শান্তিপূর্ন ভাবেই এদিন ভোটপর্ব মিটেছে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে। এই প্রসঙ্গে ডিএসএফের নেতা অভীক দাস জানান, ‘বড় ভোটবাজ পার্টিগুলো যাদবপুরের কাছ থেকে শিখুক কেমন করে ভিন্ন মতকে জায়গা করে দিতে হয়। গণতান্ত্রিক, অবাধ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন কেমন করে করতে হয়, সেটা যাদবপুরের ছাত্রছাত্রীদের থেকে শিখে নিক বড় পার্টিগুলো’।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here