ডেস্ক: জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামার এক থানার অফিসার মঙ্গলবার থেকে নিখোঁজ ছিলেন। এরপরই সেই অফিসারের হিজবুল মুজাহিদিন জঙ্গি গোষ্ঠীর সঙ্গে জড়িত হওয়ার খবরে চাঞ্চল্য ছড়াল। ওই অফিসারের নাম ইরফান আহমেদ ডার। তিনি পাম্পর থানার অফিসার ছিলেন। সূত্রের খবর, নিখোঁজ হওয়ার সময় তাঁর কাছে একে-৪৭ রাইফেল ছিল। এদিন এক ভিডিও সামনে এসেছে, সেখানেই ইরফানের দলে যোগদানের কথা স্বীকার করেছে হিজবুল। ইরফান পুলওয়ামা জেলার এসপিও দলের একজন বিশেষ আধিকারিক ছিলেন। তাঁর এভাবে দলে যোগদানের খবরে একেবারে হতভম্ব কাশ্মীর পুলিশ প্রশাসন। তাকে খোঁজার জন্য পুলিশ অভিযান শুরু করে দিয়েছে।

মুজাহিদ্দিন সংগঠনের প্রবক্তা বুরহান-উ-দ্দিনই দক্ষিণ কাশ্মীরের বাসিন্দা ইরফান ডারের তাঁদের দলে যোগদানের খবর দিয়েছেন। তিনি তাঁর বিস্ফোরক মন্তব্যে আরও বলেছেন যে, ‘আমি জম্মু-কাশ্মীর পুলিশের সকল আধিকারিককেই অনুরোধ করছি যে তাঁরা নিজেদের চাকরি ছেড়ে দিয়ে যেন আমাদের দলে যোগ দেয় এবং এই সংঘর্ষে আমাদের সঙ্গে থাকে’। এর আগেও ভারতীয়দের হিজবুল দলে যোগদানের খবর সামনে এসেছিল। এই বছরেরই এপ্রিল মাসে আসামের এক যুবকের এই দলে আসার খবর পাওয়া যায়। এ নিয়ে যথেষ্ট চাঞ্চল্য ছড়ায়।

প্রসঙ্গত, ১৯৮৯ সালে এই হিজবুল মুজাহিদিন দলের প্রতিষ্ঠা হয় এবং এটি জম্মু-কাশ্মীরের সক্রিয় সবথেকে পুরনো একটি জঙ্গি গোষ্ঠী। এই সংগঠনটি জম্মু ও কাশ্মীরে ঘটা বহু জঙ্গি হামলার করার কথা তাঁরা অকপটে স্বীকার করেছে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here