অবশেষে সামনে এল সত্যি! গণপিটুনির জেরেই মৃত্যু তাবরেজের, নতুন চার্জশিট পুলিশের

0
774
kolkta brngali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: কয়েকমাস আগে ভাইরাল একটি ভিডিওতে শিউড়ে উঠেছিল দেশ৷ খুঁটিতে বেঁধে বেধড়ক মারা হচ্ছ এক যুবককে৷ তিনি হাত জোড় করে মিনতি করছেন তাকে ছেড়ে দেওয়ার জন্য৷ কিন্তু অন্যদিক থেকে এলোপাথারি মারের সঙ্গে জোর করে তাকে বলতে বলা হচ্ছে ‘জয় শ্রীরাম’৷ তিনি বলছেনও, তবুও মেলেনি রেহাই৷ শেষমেষ গণপিটুনির জেরেই মৃত্যু হয় বছর বাইশের তাবরেজ আনসারির৷ কয়েকদিন আগেই তাবরেজেকাণ্ডের চার্জশিট পেশ করেছিল পুলিশ৷ তাতে লেখা ছিল তাবরেজ নাকি খুনই হননি, কার্ডিয়াক অ্যারেস্টে মৃত্যু হয়েছে তাঁর৷ আট দিন পরে বদলালো চার্জশিট৷ অভিয়ুক্ত ১১ বিরুদ্ধে সেই অভিযোগ ফিরিয়ে দেওয়া হল৷

গণপিটুনির জেরে তাবরেজ আনসারির মৃত্যু পর গর্জে উঠেছিল দেশ৷ কিন্তু ছত্তিশগড় পুলিশ তার ময়নাতদন্তের ভিত্তিতে যে চার্জশিট তৈরি করেছিল তা গোটা ঘটনার মোড় ঘুরিয়ে দেয়৷ ময়নাতদন্তে বলা হয়েছিল, তবরেজের মৃত্য়ুর কারণ ছিল কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট। এই রিপোর্টের ভিত্তিতে তদন্তের চার্জ শিট থেকে অভিযুক্তদের উপর থেকে খুনের অভিযোগ প্রত্যাহারও করে ঝাড়খণ্ড পুলিশ। তবে এ বার নতুন মেডিক্যাল রিপোর্টে প্রকাশ্যে এল সত্যি। এতে বলা হয়েছে, একাধিক আঘাতের ফলেই মৃত্যু হয় তবরেজের। মূলত, মারের চোটে খুলি ফেটে যাওয়া, অঙ্গপ্রত্যঙ্গ রক্তশূন্য হয়ে যাওয়া, হার্টের প্রকোষ্ঠে রক্ত জমে যাওয়ার কারণেই কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট হয় তবরেজের। তাতেই মারা যান বছর বাইশের এই যুবক৷

২২ বছরের যুবক তবরেজ আনসারি পুণেতে দিনমজুরের কাজ করতেন৷ ইদের ছুটি কাটাতে বিহারের গ্রামে এসেছিলেন। জুন মাসের ১৮ তারিখে জামশেদপুর যাচ্ছিলেন তিনি। অভিযোগ, ঝাড়খণ্ডের খারসাওয়ান দিয়ে যাওয়ার সময় চোর সন্দেহে কয়েক জন তাঁকে ঘিরে ধরে৷ উন্মত্ত জনতার রোষের শিকার হন তবরেজ৷ লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারধর করা হয় তাঁকে। এরপরই মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়ে তাবরেজ৷ গোটা দেশে ভাইরাল হওয়া সেই ভিডিওর পরও কী করে এধরণের ময়নাতদন্তের রিপোর্ট আসতে পারে তা নিয়ে উঠেছিল একাধিক প্রশ্ন৷ তবে শেষমেষ ঠিকঠাক রিপোর্টে ফের আইনের গেরোয় পড়ল অভিযুক্ত ১১ জন৷ যাদের কঠিন শাস্তির অপেক্ষা করছে দেশবাসী৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here