jnu news

Highlights

  • রবিবার রাতে দিল্লির জওহরলাল নেহুরু বিশ্ববিদ্যালয়ের গার্লস হোস্টেলে ঢুকে ভাঙচুর চালায় একদল মুখোশধারি গুন্ডা
  • রড-বাঁশ দিয়ে মেরে মাথা ফাটানো হয়েছে ছাত্র সংসদের সভানেত্রী ঐশী ঘোষের
  • গোটা ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর জগদীশ কুমারের পদত্যাগ দাবি করেছে জেএনইউ ছাত্র সংসদ

মহানগর ওয়েবডেস্ক: রবিবার রাতে দিল্লির জওহরলাল নেহুরু বিশ্ববিদ্যালয়ের গার্লস হোস্টেলে ঢুকে ভাঙচুর চালায় একদল মুখোশধারি গুন্ডা। মারা হয় ছাত্রী, অধ্যাপকদের। এই ঘটনায় অভিযোগের আঙুল উঠেছে গেরুয়া ছাত্র সংগঠন এবিভিপির দিকে। একই সঙ্গে গোটা ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর জগদীশ কুমারকেও বিঁধতে ছাড়েননি ছাত্রছাত্রীরা। ক্যাম্পাসে এই হিংসার ঘটনায় তাঁকে প্রত্যক্ষ ভাবে দায়ী করে সহ-উপাচার্যের পদত্যাগ দাবি করেছে জেএনইউ ছাত্র সংসদ।

সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়,

‘বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ উপাচার্য জগদীশ কুমার এই হামলার জন্য প্রত্যক্ষভাবে দায়ী। উনিই নানা রকম সিদ্ধান্ত নিয়ে ক্যাম্পাসকে কার্যত যুদ্ধক্ষেত্রে পরিণত করেছেন। সেই সঙ্গে অনৈতিক উপায়ে নানা পদে এবিভিপি সমর্থকদের নিয়োগ করছেন। ওনার প্রচ্ছন্ন মদতেই রবিবার রাতে একদল মুখোশধারি দুষ্কৃতী গার্লস হোস্টেলে লাঠি, রড নিয়ে হামলা চালিয়েছে। উনি এই নিয়ে কোনও রকম প্রশ্নের সম্মুখীনও হতে চাননি। তাই জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদের পক্ষ থেকে ভীরু সহ-উপাচার্যের পদত্যাগ দাবি করা হচ্ছে…’

উল্লেখ্য, রবিবার সন্ধে নাগাদ মুখে কালো কাপড় বেঁধে আচমকাই ক্যাম্পাসে ঢুকে পড়ে একদল দুষ্কৃতী। সামনে যে আসে তাকেই ধরে মারধর করা হয়, সঙ্গে গাড়ি ভাঙচুরও করা হয় বলে অভিযোগ। এই তাণ্ডবে জেএনইউ-র ছাত্র সংগঠনের সভাপতি ঐশী ঘোষ গুরুতর আহত হন। মাথা ফেটে যায় তাঁর। এমনকি যেসব অধ্যাপক, অধ্যাপিকারা সেই সময় ছাত্র ছাত্রীদের বাঁচানোর জন্য এগিয়ে আসেন, তাঁদের ওপরও হামলা চালায় ওই দুষ্কৃতীরা। এই ঘটনায় এখনও কেউ গ্রেফতার না হলেও দ্রুত তদন্তের আশ্বাস দিয়েছে দিল্লি পুলিশ।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here