kolkata bengali news

ডেস্ক: কলকাতা লিগ মেলেনি, হাতছাড়া হয়েছে আই লিগও। পাশাপাশি, সুপার কাপ না খেলার সিদ্ধান্তে কোয়েস অনড় থাকায় বড় ট্রফি না পেয়েই মরশুম শেষ করতে হচ্ছে ইস্টবেঙ্গলকে (না, ট্রফিলেস মরশুম বলা চলে না, রিজার্ভ দলের ফুটবলাররা দার্জিলিং গোল্ড কাপ জিতেছেন যে)। এরই মাঝে আগামী মরশুমের জন্য দল গঠনের প্রক্রিয়া শুরু করে ইস্টবেঙ্গল। শুক্রবার ক্লাবে এসে টোকেন জমা দিয়ে গেলেন এবারে ইস্টবেঙ্গলের সেরা মুখ জবি জাস্টিন। সাফ জানালেন, কর্তারা চাইলেই আগামী মরশুমে ফের একবার লাল-হলুদ জার্সি পড়তে রাজি তিনি।

২০১৭ সালে ইস্টবেঙ্গলে যোগ দিয়েছিলেন জবি। কলকাতা লিগে নজর অভিষেক ম্যাচে গোল করে নজর কেড়েছিলেন তিনি। কিন্তু তারপরও আই লিগে খুব একটা সুযোগ পাননি তিনি। খালিদ জমানায় খেলেছিলেন মাত্র ৯টি ম্যাচে। তবে যেটুকু খেলেছিলেন নিজেকে প্রমাণ করার চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু জবির কেরিয়ারে স্বপ্নের উত্থান আলেহান্দ্রোর হাত ধরে। শেষ আই লিগে নয়টি গোল করে সর্বোচ্চ ভারতীয় স্কোরার হন তিনি।

 

কিন্তু আই লিগের পরপরই শোনা গিয়েছিল জবিকে নাকি প্রস্তাব দেওয়া হিয়েছে এটিকের পক্ষ থেকে। সেই প্রস্তাব নাকি মেনেও নিয়েছেন জবি। কিন্তু ভারতীয় ফুটবলের নিয়ম অনুযায়ী কোনও প্লেয়ারের টোকেন যে ক্লাবের কাছে থাকবে, সেই ক্লাবের হয়েই খেলতে হবে সংশ্লিষ্ট খেলোয়াড়কে। এখন জবির সঙ্গে আরও এক বছরের চুক্তি আছে লাল-হলুদের। তাই বৃহস্পতিবার ক্লাব তাঁবুতে গিয়ে তিনি তাঁর টোকেন জমা দিয়ে আসেন। এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জবি জানান, ‘ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের তরফ থেকে প্রচুর ভালবাসা পেয়েছি। তাই ইস্টবেঙ্গলেই থাকতে চাই।’ এছাড়া তাঁকে ক্লাব না ছাড়ার পরামর্শও নাকি দিয়েছেন কোচ মেনেন্দেজ গার্সিয়া। ‘কোচ বলেছেন এই ক্লাবেই আমার উত্থান। আমি যেন এখনই ক্লাব না ছাড়ি। এছাড়া আমার এই সাফল্যের পেছনে কোচের অবদান যথেষ্ট। ওনার কোচিং স্টাইলও আমার খুব পছন্দের’, বলন জবি জাস্টিন।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here