bengali news

Highlights

  • শিয়রে ছাত্র সংসদ নির্বাচন। তাঁর আগেই বড়সড় ভাঙন
  • ইস্তফাপত্র পাঠাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩১ জন কমরেড
  • গোটা ঘটনায় রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে লাল শিবিরে

মহানগর ওয়েবডেস্ক: শিয়রে ছাত্র সংসদ নির্বাচন। তাঁর আগেই বড়সড় ভাঙনের মুখে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের এসএফআই সংগঠন। শনিবার এসএফআইয়ের বিরুদ্ধে একরাশ অভিযোগ তুলে সংগঠনের ইউনিট প্রেসিডেন্ট ও কলকাতা জেলা কমিটির সম্পাদকের কাছে নিজেদের ইস্তফাপত্র পাঠাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩১ জন কমরেড। গোটা ঘটনায় রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে লাল শিবিরে।

কিন্তু কেন হঠাৎ এই গণইস্তফা? জানা যাচ্ছে সংগঠনের বিরুদ্ধে দীর্ঘদিন ধরে পুষে রাখা ক্ষোভ প্রকাশ হয়েছে এদিন। ওই ইস্তফাপত্রে কমরেডদের অভিযোগ, সংগঠনের অন্দরে দীর্ঘদিন ধরে ধর্ষণ, শ্লীলতাহানী, পুরুষতন্ত্র, ও মহিলাদের স্বাধীনতা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হচ্ছে। বাম মতাদর্শ ভুলে ডানপন্থীদের মতো জাতপাত পোষাক দিয়ে মানুষ বিচার করা হচ্ছে। এই প্রসঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী তথা ছাত্র সংসদের বর্তমান চেয়ারপার্সন সোমাশ্রী চৌধুরঈ বলেন, ‘সংগঠনের মধ্যে কাজ করার মতো পরিস্থিতি নেই। এই ঘটনাগুলি নিয়ে বারবার অভিযোগ তোলা সত্ত্বেও কোনও পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। হাত গুটিয়ে বসে রয়েছে কলকাতা জেলা কমিটি। যার জেরেই বাধ্য হচ্ছি ইস্তফা দিতে।’ তবে তিনি এটাও স্পষ্ট করে দেন, ‘দল ছাড়লেও বাম আদর্শ থেকে আমরা সরে যাচ্ছি না।’ আর এক বিক্ষুব্ধ ছাত্রীর অভিযোগ, ‘যে সংগঠন মুক্ত চিন্তার পক্ষে সওয়াল করে তারই আবার মেয়েদের পোশাক নিয়ে কথা বলে? আরএসএস মানসিকতার নেতৃত্বদের সঙ্গে আর যাই হোক কমিউনিস্ট আদর্শ নিয়ে সংগঠন করা যায় না। যার জেরেই এই গণইস্তফা।’

এদিকে গোটা পরিস্থিতি নিয়ে এসএফআইয়ের কলকাতা জেলা সম্পাদক তথা রাজ্য সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য সমন্বয় রাহার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে, তিনি এই বিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে চাননি। যদিও গোটা ঘটনায় বাম ছাত্র সংগঠন যে বেশ চাপে রয়েছে তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

উল্লেখ্য, প্রায় ২ বছর পর ছাত্র ভোটের দিনক্ষণ স্থির করেছে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়। আগামী ১৯ ফেব্রুয়ারি হচ্ছে এই নির্বাচন। এবং ২০ তারিখহবে ফল ঘোষণা। গোটা রাজ্যের হাল খারাপ হলেও যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়কে বামেদের গড় হিসাবেই ধরে রাজনৈতিক মহল। সেখানেই এহেন ঘটনায় নেতৃত্ব যে ঢোক গেলা শুরু করেছে তা একরকম স্পষ্ট।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here