নিজস্ব প্রতিবেদক, ব্যারাকপুর: সিকিমে বেড়াতে গিয়ে পথ দুর্ঘটনায় প্রাণ হারান উত্তর ২৪ পরগনার মছলন্দপুরের বেশ কয়েকজন পর্যটক। বুধবার এই পর্যটকদের বাড়িতে গিয়ে তাদের আত্মীয়দের পাশে থাকার আশ্বাস দিলেন রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী তথা হাবড়ার স্থানীয় বিধায়ক জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক । বুধবার দুপুরে জ্যোতিপ্রিয় বাবু মছলন্দপূরের পাঠক পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দেখা করেন । ওই পরিবারের ৫ সদস্য পথ দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন, জখম হয়েছেন আরও তিনজন । বুধবার ৫ জনের মৃতদেহ নিয়ে সড়ক পথে ফিরছেন তাদের পরিবারের আত্মীয়রা ।

জখম পর্যটকরদের সিকিম থেকে বিমানে করে এদিনই কলকাতায় নামার কথা । এদিন জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, ‘মুখ্যমন্ত্রী নিজে এই পথ দুর্ঘটনার বিষয়ে খোঁজ খবর নিয়েছেন। পর্যটকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘পর্যটকদের আরও সচেতন হতে হবে । আমাদের রাজ্যের দার্জিলিং বা গাজলডোবায় যারা বেড়াতে আসেন সেক্ষেত্রে এরকম ঘটনা ঘটে না । সিকিমে দুর্ঘটনার খবর বেশি আসে । এই রাজ্যের পর্যটন ব্যবস্থা উন্নতমানের । পর্যটকদের সচেতনতা অবলম্বন করা উচিত ।’

মৃত পর্যটকদের পরিবারের আত্মীয়দের পাশে থেকে তাদের সবরকম সাহায্য করা হবে বলে জানান খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক । প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, সোমবার রাতে এই মর্মান্তিক পথ দুর্ঘটনা ঘটে সিকিমের রংপোর কাছে । গাড়িটিতে ৮ জন পর্যটক ছিল বলে জানা গিয়েছে। পর্যটক বোঝাই গাড়িটি ৩০০ ফুট নিচে গভীর খাদে পড়ে গেলে ঘটনাস্থলেই ৫ পর্যটকের মৃত্যু হয়, বাকি ৩ জন গুরুতর জখম হয় । ঘটনাস্থলেই নিহারেন্দু বিশ্বাস, ব্রজেন পাঠক, তার স্ত্রী আশালতা পাঠক এবং ওই দম্পতির একমাত্র ছেলে চিকিৎসক বিভাস পাঠক, ব্রজেন বাবুর বৌদি লিলি পাঠকের মৃত্যু হয়৷ নিহারেন্দু বাবুর বাড়ি বারাসতের ছোটবাজার এলাকায় বলে জানা গেছে ৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here