ডেস্ক: ফাঁস হওয়া দুটি চাঞ্চল্যকর অডিও টেপ থেকে শিক্ষা নিলেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়। এবার থেকে খুব জরুরি না হলে ফোনের মাধ্যমে কথা না বলারই নিদান দিলেন বাংলার কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক।

তাহলে যে কোনও প্রয়োজনে কী করা হবে? কৈলাসবাবু বিজেপি নেতৃত্বকে জানিয়েছেন, যে কোনও প্রয়োজনে হোয়াটসঅ্যাপ কল করতে। কারণ হোয়াটসঅ্যাপ কল ট্যাপ করা সম্ভব নয়। সপ্তাহখানেক আগেই কয়েক দিনের ব্যাবধানে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয় মুকুল-কৈলাসের দুটি কথোপকথনের অডিও। যেখানে দুই বিজেপি নেতাকে শুনতে পাওয়া যায় এমন কিছু কথা বলতে যা রাজ্য রাজনীতির বুকে রীতিমতো তোলপাড় সৃষ্টি করে।

প্রথম ভাইরাল হওয়া কলে শোনা যায় তৃণমূলকে ভাঙতে মতুয়া সম্প্রদায়ের প্রভাবশালী নেতাদের দলে টানার কথা। দ্বিতীয় অডিওতে শুনতে পাওয়া যায়, ম্যাথু স্যামুয়েলের প্রসঙ্গ। মুকুল কৈলাসকে বলেন, ম্যাথুর কাছে এমন কিছু ডকুমেন্ট্রি রয়েছে যা প্রকাশ্যে এলে তৃণমূল শেষ হয়ে যাবে। তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে এই অডিও দুটিকে মিথ্যা বলে দাবি করা হয় নি। বরং দিল্লি হাইকোর্টে ফোনে আড়ি পাতা হচ্ছে বলে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগও দায়ের করেন মুকুল।

ফলে একটা বিষয় স্পষ্ট, যে অডিও ক্লিপগুলি প্রকাশ্যে এসেছিল তা বস্তুত মুকুল ও কৈলাসেরই। কিন্তু তা ফাঁস হয়ে যাওয়ায় পিছুও হটতে পারেনি বিজেপি। বরং পাল্টা আক্রমণ করতেই আদালতে মামলা দায়ের করা হয়। পাশাপাশি ফাঁসের ঘটনা থেকে শিক্ষা নিয়ে ফোন না করারই উপদেশ দিলেন কৈলাস।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here