Home Featured গোপনে অভিযান চালিয়ে নাবালিকা বিবাহ আটকালেন কালিয়াচকের বিডিও

গোপনে অভিযান চালিয়ে নাবালিকা বিবাহ আটকালেন কালিয়াচকের বিডিও

0
গোপনে অভিযান চালিয়ে নাবালিকা বিবাহ আটকালেন কালিয়াচকের বিডিও
Parul

নিজস্ব প্রতিনিধি, মালদা: গোপন সূত্রে খবর পেয়ে এক ছাত্রীর বিয়ে আটকালেন কালিয়াচক-‌২ ব্লকের বিডিও অনির্বাণ দাসগুপ্ত। পুলিশ সূত্রে পাওয়া খবর অনুযায়ী তাঁর কাছে নাবালিকার বিয়ের ব্যাপারে একটি উড়ো ফোন আসে। সেই ফোনের সূত্র ধরে মোথাবাড়ি থানার লক্ষীপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের কাহালা গ্রামে পুলিশ ও প্রশাসনকে গোপন অভিযান চালানোর নির্দেশ দেন বিডিও।

পরে প্রশাসন ও পুলিশের যৌথ সহযোগিতায় বিয়ে বন্ধ করা সম্ভব হয়। এবং দুই পক্ষই সংশ্লিষ্ট ব্লক ও পুলিশ প্রসাসনের কর্তাদের কথা মেনে নিয়ে এবং বিয়ে বন্ধ করে দেয়। নাবালিকার পরিজনদের বক্তব্য, তাঁদের মেয়ের যে এখনো বিয়ের উপযুক্ত বয়স হয় নি তা তাঁদের ঠিক জানা ছিল না। বিষয়টি জানার পর মেয়ের বয়স ১৮ হলে তবেই বিয়ের ব্যাপারে ভাববেন বলে জানিয়েছেন তাঁরা।

জানা গেছে, ওই নাবালিকা স্থানীয় স্কুলের দশম শ্রেণির ছাত্রী। গত বছর লকডাউনের পর থেকে তেমন পড়াশোনা হচ্ছে না দেখে মেয়ের পড়াশোনা বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল তার মা। বেশ কয়েক বছর আগেই বাবা মারা যান ওই কিশোরীর। তাই নুন আন্তে পান্তা ফুরনো পরিবারে মেয়ের বিয়ে দেওয়ার জন্য উঠে পড়ে লাগেন মা। তারপর বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন তিনি। অভিযোগ ওই গ্রামেরই এক যুবকের সঙ্গে মেয়ের বিয়ে ঠিক করে গত বৃহস্পতিবার বিয়ের আয়োজন করা হয়

কিন্তু গোপন সূত্রে বিডিওর কাছে একটি ফোন আসে। তৎক্ষণাৎ বিডিও অনির্বাণ সেনগুপ্তের নির্দেশে জয়েন্ট বিডিও দেবব্রত মন্ডল ও ব্লকের ইঞ্জিনিয়ার মহসিন খানের নেতৃত্বে বিশাল পুলিশবাহিনী নিয়ে কাহালা গ্রামে উপস্থিত হন। বিডিও  অনির্বাণ সেনগুপ্ত জানান, “এই খবর আমার কাছে আসা মাত্রই পুলিশের সঙ্গে আমাদের প্রতিনিধি দল সেখানে হাজির হয়। পাত্র-পাত্রী উভয় পক্ষের অভিভাবকদের সঙ্গে কথা বলে তাদের কাছে লিখিত মুচলেকা নিয়ে এই বিয়ে বন্ধ করা গেছে। যদিও দুই পক্ষই বিষয়টি মেনে নিয়েছে। এখন ছাত্রীটি যাতে পড়াশোনা চালিয়ে যেতে পারে সেই দিকটি দেখা হচ্ছে।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here