মহানগর ডেস্ক: সাসপেন্ড কঙ্গনা রানাউতের টুইটার অ্যাকাউন্ট। কিছুক্ষণ আগেই তিনি পোস্ট করেছিলেন একটি ভিডিও বার্তা। পশ্চিমবঙ্গে নির্বাচন পরবর্তী হিংসার ঘটনার প্রেক্ষিতে ক্যাপশনে লিখেছিলেন, ‘ব্যাখ্যার অতীত। গণতন্ত্রের হত্যা।’

ভিডিও বার্তায় কঙ্গনা জানিয়েছিলেন, তাঁর কাছে একাধিক ছবি, ভিডিও এসেছে যেখানে ফুটে উঠেছে পশ্চিমবঙ্গে হিংসার ঘটনার ছবি। তিনি দাবি করেছিলেন, বাংলায় ঘটে চলেছে একের পর এক হিংসাত্মক ঘটনা। খুন, গণধর্ষণ, বাড়ি জ্বালিয়ে হয়েছে বলে তিনি অভিযোগ করেছিলেন টুইটটিতে। কঙ্গনা এ-ও বলেছিলেন, দেশদ্রোহীদের নেতৃত্বে কোনও সরকার চলতে পারে না। এ ব্যাপারে কেন্দ্রকে কড়া মনোভাব দেখানোর আর্জি রেখেছিলেন তিনি। রাষ্ট্রপতি শাসন জারির কথাও বলেছিলেন তিনি।

বলিউড অভিনেত্রী বলেছিলেন, ‘আমরা বড়সড় ষড়যন্ত্রের শিকার।’ তাঁর দাবি, সবাই সব দেখেও না দেখার ভান করছেন। আন্তর্জাতিক মিডিয়া চুপ করে রয়েছে বলে তিনি দাবি করেছেন। কিছু আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের নামও শোনা গিয়েছিল তাঁর মুখে। জানা গিয়েছে, প্ররোচনামূলক মন্তব্য করার অভিযোগে গতকালই কলকাতায় তাঁর বিরুদ্ধে দায়ের হয়েছে মামলা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here